প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ডিজিটাল মিডিয়ায় মার্কিন ও ইরানি শিল্পীদের যৌথ সঙ্গীত পরিবেশনা (ভিডিও)

রাশিদ রিয়াজ : [২] রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক দিক ধেকে যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে টানাপড়েন চলে আসলেও এ দুটি দেশের সঙ্গীত শিল্পীদের সঙ্গীতের মধ্যে দিয়ে করোনাকালে নতুন আশার সঞ্চার করেছে। ওয়াশিংটন ভিত্তিক অপেরা কোম্পানি আইএর সিরিজ ও তেহরান সিম্ফনি অর্কেস্ট্রার শিল্পীদের পরিবেশিত সঙ্গীতটি জার্মান ও ব্রিটিশ সুরকার জর্জ ফ্রিডেরিক হ্যান্ডেলের ‘সেরসে জেরেক্সেসের গল্প অবলম্বনে রচিত। সিএনএন

[৩] নর্থ আমেরিকান-ইরানিয়ান ফ্রেন্ডশিফ এ্যাসোসিয়েশনের সহযোগিতায সঙ্গীতটির ভিডিও ভার্সন এ সপ্তাহে মুক্তি পায়। ভিডিওটিতে ইরানের ১৯ জন শিল্পী সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে তেহরানের রৌদাকি হলে কণ্ঠ পরিবেশন করেন। একই সঙ্গে ওয়াশিংটন থেকে ৭ জন অপেরা শিল্পী সঙ্গীতটিতে একই সঙ্গে অংশ নেন।

[৪] সঙ্গীতের মাঝে ত্রয়োদেশ শতাব্দীর ফারসি কবি ও দার্শনিক রুমির কবিতা আবৃত্তি করা হয়। গত এপ্রিলে ইউনিভার্সিটি অব মেরিল্যান্ডের রোশান ইন্সটিটিউট ফর পার্সিয়ান স্টাডিসের পরিচালক ফাতেমেহ কেশাভরাজ ও এনএআইএফএ’র ভাহিদ আবিদেহ গত এপ্রিলে এ পরিকল্পনা করেন।

[৫] সিএনএনকে আবিদেহ বলেন পশ্চিমা সঙ্গীত ও ফারসি কবিতার মধ্যে এক যোগসূত্র সৃষ্টি ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের মধ্যে যে সাংস্কৃতিক পার্থক্য আছে তা দূর করাও এধরনের আয়োজনের উদ্দেশ্য। অবরোধ, নিষেধাজ্ঞা ও যুদ্ধের মত হুমকির মধ্যেও দুটি দেশের জনগণের মধ্যে মানবতা নিয়ে জানাজানির লক্ষ্যেও এ আয়োজন কাজে আসবে। কোভিড পরিস্থিতি মোকাবেলায় সারাবিশে^র মানুষের একযোগে প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে এ আয়োজন প্রতীকী হয়ে থাকবে কারণ শিল্পের চেয়ে কোনো কিছু সেরা হতে পারে না। দুটি দেশের শিল্পীরা অসম্ভবকে সম্ভবে পরিণত করেছেন বলে জানান আইএন সিরিজের শিল্প পরিচালক টিমোথি নেলসন।

সর্বাধিক পঠিত