প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কালুরঘাট সেতু মেরামতের খরচ ৫ লাখ, নিচ্ছে ৫২ লাখ

মোহাম্মদ শাহজাহান: [২] কালুরঘাট সেতু মেরামতের নামে বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে দুনীতি দমন কমিশন ও রেলপথ মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিয়েছেন আইনজীবী সেলিম চৌধুরী। গতকাল সকালে রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) সরকার সাহাদাত আলী বরাবরও চিঠি দিয়ে তিনি এর প্রতিবাদ জানান। সেলিম চৌধুরী চিঠিতে উল্লেখ করেন, সারাদেশের সঙ্গে দক্ষিণ চট্টগ্রামের রেল যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম কালুরঘাট সেতু। রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ মেরামতের নামে ৫২ লাখ টাকা বরাদ্দ করে।

[৩] দরপত্র অনুযায়ী ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান ‘এবি কনস্ট্রাকশন’ কাজটি পেয়েছে। কার্যাদেশ অনুযায়ী সেতুটি মেরামতের জন্য ১৩-২৩ জুলাই ১০ দিন যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দেয় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। কিন্তু গণমাধ্যমে খবর বের হয় ১৩-১৯ জুলাই কোনো কাজই হয়নি। বরাদ্দকৃত অর্থ লুটে খাওয়ার জন্য সেতু বন্ধ রাখার বিজ্ঞপ্তি দিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করা হচ্ছে।

[৪] গত ২০ জুলাই থেকে লোকদেখানো কিছু কাজ হচ্ছে। স্থানীয়দের অভিযোগ বরাদ্দকৃত টাকার মধ্যে ৫-৭ লাখ টাকা খরচ হবে। বাকি টাকা রেলওয়ের প্রকৌশল বিভাগ ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের যোগসাজশে আত্মসাৎ করার প্রচেষ্ঠা চলছে আইনজীবী সেলিম চৌধুরী উল্লেখ করেন ।

[৫] সেলিম চৌধুরী জানান, মাত্র ৫ লাখ টাকার খরচ করে বাকি টাকা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানও রেলওয়ের প্রকৌশলী বিভাগ আতœসৎ করার চেষ্ঠায় লিপ্ত। আমি এ বিষয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপককে বলেছি। তিনি বিষয়টি তদন্ত করে দেখবেন বলেছেন। তিনি বলেন, চিঠি অনুলিপি দুনীতি দমন কমিশন ও রেলপথ মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছি। প্রয়োজনে এ বিষয়ে আমি আদালতেও যাবো। কারণ কালুরঘাট সেতুর সঙ্গে লাখ লাখ মানুষের সম্পৃক্ততা রয়েছে। সম্পাদনা : সাদেক আলী

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত