প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অমি রহমান পিয়াল: কমিউনিস্টরা যদি ভাবেন…

অমি রহমান পিয়াল: কমিউনিস্টরা যদি ভাবেন, ইসলামিস্টগো লগে সরকার পতনের খেলায় জোট বাইন্ধা তারা আখেরে ক্ষমতায় যাবেন। এইটা হইবো বিশাল ভুল। এই ভুল জাসদ করছিলো ৭৫-এ। তারপর দৌড়ের উপর থাকতে হইছে। জিয়া একটারেও ছাড়ে নাই। এরশাদ আসার পর রক্ষা। তারপর আওয়ামী লীগ মার্কেটে রাখছে তাগো। সিপিবির নতুন প্রজন্ম এবং চীনপন্থী বামগো কথাবার্তার লগে নব্য জামায়াত-এবিপির কোনো তফাৎ নাই। এইটা যারা তাগো লগে বাতচিত করে তারা ঠিকই বোঝে। তারা যে আসলে ক্যানো কমিউনিস্ট হইছে, এইটা আমারও বুঝতে সমস্যা হয়। ওল্ড স্কুলরে তারা পুছেও না। এতোসব কথাবার্তা ভূমিকায় দিলাম কারণ চীন আচমকা বাংলাদেশের রাজনীতিতে একটা বড় ধরনের আগ্রহ নিয়া হাজির হইছে। ভারতের সঙ্গে তাদের সাম্প্রতিক সংঘাতের পর বাংলাদেশের ভূগোল তাদের জন্য বিপজ্জনক বইলা সাব্যস্ত হইছে। কারণ বর্তমান সরকার ভারতবান্ধব। চুক্তির কারণে হোক আর মিত্রতার কারণেই হোক যুদ্ধকালে ভারত সুবিধা পাবে। সেটা ঠেকানো সম্ভব যদি সরকার চীনবান্ধব হয়। যেহেতু চীনের পকেটে বহুদিন ধইরাই পাকিস্তান, তাই আইএসআইর সব এসেট চাইলে চীন ব্যবহার করতে পারে। কিন্তু সেই এসেট মানে বিএনপির তো মাজুল দশা, জামাতও ফিল্ডে নাই।

যেভাবেই হোক জামায়াত থিকা হেফাজতরে দূরে রাখার আওয়ামী কৌশলটা এতোদিনে ফায়দা দিতেছে। জামাতিরা খোলনলচে বদলায়া এবি পার্টি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করার পর সাঈদী মুক্তি আন্দোলন সামনে রাইখা যতোটা কওমি আকৃষ্ট করতে পারবো ভাবছিলো, তা হয় নাই। মঞ্জু-সাকিরা একলগে খানাপিনা করে, নতুন নতুন নকশা বানায়। নুরা ভিপিও দল করছে। এদের সবারই ধারণা বাংলাদেশের ৮০ ভাগ তাদের পাশে আছে। আছে কিনা সেইটা একটা আন্দোলন কিংবা একটা নির্বাচন কইরা তারা দেখতে পারে। সবাই তাকায়া আছে আর্মির দিকে। গোলাম আজমের পোলার ভক্তরা কিংবা নব্য হিট সোহরাওয়ার্দীর ফ্যানরা যদি হেল্প করে তাদের প্রাসাদষড়যন্ত্র সাকসেসফুল হবে। এইটা তাগো ধারণা। তাগো থিকা বড় প্লেয়ার ইউনুস, কামাল হোসেন, মান্নারা দিনরাত এই খেলা খেইলাও পোঙ্গা মারা খাইছে। আওয়ামী লীগের সমস্যা আসলে করোনাজনিত পরিস্থিতি। ৭৫-এ জরুরি অবস্থাই তার বিপদ ঘটাইছিলো। জরুরি অবস্থা সবসময়ই বিপ্লবের খেলাঘর। শেখ হাসিনার মতো গ্র্যান্ডমাস্টারের বিপক্ষে এই নতুন প্লেয়াররা কীভাবে খেলে সেইটার উপর অনেক কিছু নির্ভর করতেছে। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত