প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] আমাদের অর্থনীতি খুব দ্রুতই ঘুরে দাঁড়াবে : ড. আতিউর রহমান, [২] কোভিড দুর্যোগ মোকাবেলায় গ্রামীণ অর্থনীতি ধরে রাখতে হবে

ভূঁইয়া আশিক : [৩] বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক এই গভর্নর আরও বলেন, গ্রামীণ অর্থনীতি বারবার বাঁচিয়েছে আমাদের। সরকারও কৃষিকে নিরন্তর সমর্থন দিয়ে গেছে। এখনো দিচ্ছে। আধুনিক কৃষিকে কীভাবে আরও বেশি সমর্থন দেওয়া যায়, এ বিষয়ে সরকারের পাশাপাশি অন্যদেরও ভাবা উচিত।

[৪] এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপে তিনি বলেন, কৃষিপণ্য রপ্তানি এখনো চালু আছে, এটা কী করে আরও সক্রিয় করা যায়, সেদিকে নজর দিতে হবে।

[৫] প্রাইভেট সেক্টরের অনেকেই কর্মসংস্থান হারিয়েছেন। ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের আয় কমে গেছে। অনেক শিল্পকারখানা বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। অনেক ছাঁটাইও হচ্ছে। এর ফলে দারিদ্র্যের হার বেড়ে যাচ্ছে। কোভিড আসলে সমাজে বহুমাত্রিক সংকট তৈরি করেছে। সরকারের পক্ষে একা সব সামলানো খুব কঠিন হবে। ফলে সংকট মোকাবেলায় বেসরকারি খাতকে সাহসী ভূমিকা পালন করতে হবে। এতো তাড়াতাড়ি ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্ত নেওয়া ঠিক হবে না। কিছুটা ধৈর্য ধরতে হবে।

[৬] প্রণোদনা প্যাকেজগুলো দ্রুত বাস্তবায়নের জন্য কেন্দ্রিয় ব্যাংক বা ব্যাংকগুলোর আরও উদ্যোগী হওয়া দরকার। ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পকারখানাগুলোর জন্য যে প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছে, তা বাস্তবায়নের পথে কোনো ধরনের প্রতিবন্ধকতা থাকলে দ্রুতই সেসব দূর করা দরকার।

[৭] প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়নের ঝুঁকি শেয়ার করা একটি চ্যালেঞ্জ। ঝুঁকি শেয়ারিংয়ের একটা ব্যবস্থা করতে হবে। দরকার হলে ক্রেডিট গ্যারান্টি স্ক্রিম চালু করে ফেলা উচিত।

[৮] অনেক নতুন উদ্যোক্তা তৈরি হচ্ছে, তাদের কীভাবে সহযোগিতা করা যায়, তা নিয়েও ভাবা উচিত।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত