প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রেমিটেন্স বেশি আসাটা শুধু আনন্দের নয়, আছে শঙ্কাও!

কূটনৈতিক প্রতিবেদক : [২] সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রবাসীরা ২০১৯ সালের জানুয়ারি থেকে মে মাস পর্যন্ত দেশে ৪২৯ কোটি টাকা জনতা ব্যাংকের মাধ্যমে রেমিটেন্স পাঠান। ২০২০ সালে ওই একই সময়ে দেশে প্রবাসীরা পাঠিয়েছেন ৫৩৩ কোটি টাকা।

[৩] আমিরাত প্রবাসী বাংলাদেশিরা গত বছরের তুলনায় এ বছরের প্রথম পাঁচমাসে গত বছরের ১০৪ কোটি টাকা বেশি রেমিটেন্স পাঠালেও মূলত তারা কাজ হারিয়ে বা ব্যবসা গুটিয়ে শেষ সম্বলটুকু পাঠিয়ে দেশে ফিরে আসছেন।

[৪] আমিরাত বাংলাদেশ সমিতির সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, এ রেমিটেন্সকে কিন্তু কন্টিনিউয়াস প্রবাহ বলে আমরা ধরে নিতে পারি না। এটা হচ্ছে ক্লোজিং রেমিটেন্স।

[৫] এখানে সাত-আট লাখ বাংলাদেশি আছেন। সেখান থেকে এক দুই লাখ লোক চলে গেলে উচ্ছসিত হওয়ার সুযোগ নেই। দেশে যারা ফিরে গেছেন, তাদের প্রত্যাবর্তনের জন্য একটা ফর্মুলা বের করতে হবে। কোম্পানিগুলোর কাছ থেকে এদের প্রত্যাবর্তনের জন্য একটা কমিটমেন্ট আদায় করে নিতে হবে।

[৬] দূতাবাসের কাছে স্পষ্ট কোন তথ্য না থাকলেও স্থানীয় বাংলাদেশি কমিউনিটি লিডার এবং দূতাবাস কর্মকর্তাদের ধারণা করোনাভাইরাস সংকটে এরই মধ্যে ৩০ হাজারেরও বেশি বাংলাদেশি কাজ হারিয়ে দেশে ফিরে এসেছেন। সম্পাদনা : খালিদ আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত