প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বাংলাদেশকে চীনা শুল্কমুক্ত সুবিধার ঘোষণাটি কাগুজে : ইকোনমিক টাইমস

কূটনৈতিক প্রতিবেদক : [২] বাংলাদেশের জন্য এটা একটা ‘দ্বৈত বানিজ্য ঘাটতি’ এবং ‘ঋণের ফাঁদে’ ফেলে দেয়া হবে উল্লেখ করে গণমাধ্যমটির বিশ্লেষণে বলা হয়, বেইজিং এসব ক্ষেত্রে কঠোরভাবে রুলস অব অরিজিন মেনে চলে। সুতরাং তার এই ছাড় দেয়ার ঘোষণা কাগজেই থেকে যাবে ।

[৩] ঢাকার উচিত হবে শ্রীলংকার অবস্থা থেকে শিক্ষা নেয়া। কারণ কলম্বো বাধ্য হয়েছিল, তার হাম্বানতোতা সমুদ্র বন্দর ৯৯ বছরের জন্য বেইজিংকে ইজারা দিতে।

[৪] পত্রিকাটি বলেছে, বাংলাদেশ কানেক্টিভিটির ক্ষেত্রে বন্দর, নদী, রেল ও মহাসড়ক দিয়ে এমন অবস্থায় পৌঁছেছে, যা শুধু ভারতীয় বাজার নয়, তার পক্ষে ভুটান এবং নেপালকে যুক্ত করা সম্ভব।

[৫] গত এক দশক ধরে ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের বাণিজ্য সম্পর্ক বেড়েই চলছে। ১৮–১৯ সালে বাংলাদেশে ভারতের রপ্তানি দাঁড়িয়েছে নয় দশমিক ২১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। আর বাংলাদেশ থেকে ভারত আমদানি করেছে একই সময়ে ১ দশমিক শূন্য চার বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

[৬] চীনের সঙ্গে বাংলাদেশের বাণিজ্য ঘাটতি ব্যাপক। আর সেটা ভীষণভাবে চীনের অনুকূলে। ১৮-১৯ সালে বাংলাদেশে চীন রপ্তানি করেছে ১৩ হাজার ৬৩৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার । কিন্তু একই সময়ে বাংলাদেশ চীনে রপ্তানি করেছে মাত্র ৫৬৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

[৭] গত দুই দশকে চীনের সঙ্গে বাংলাদেশের বাণিজ্য ঘাটতি ১৬ গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। সম্পাদনা : খালিদ আহমেদ

সর্বাধিক পঠিত