প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] করোনায় মৃত্যু পল্লি চিকিৎসকের সৎকারে এগিয়ে আসেন কাশিয়ানী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা

আসাদুজ্জামান বাবুল/মাহাবুব সুলতান : [২] করোনায় আক্রান্ত হয়ে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে মৃত্যু পল্লি চিকিৎসক বিমল কৃষ্ণ ত্রিনাথের সৎকারে এগিয়ে আসেনি স্বজনরা। সৎকারের কাজ শেষ করলেন কাশিয়ানী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো, সাব্বির আহম্মেদ।

[৩] শুক্রবার রাত সোয়া নয়টার দিকে আমাদের এ প্রতিবেদককে এ তথ্য নিশ্চিত করে তিনি বলেছেন,করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু পল্লি চিকিৎসক বিমল কৃষ্ণ ত্রিনাথের সৎকারে স্বজনেরা এগিয়ে না আসলে শশুর বাড়ীর দু-জন লোক দুর থেকে বিমলের মরদেহ দেখে কোন এক ফাঁকে চলে গেছে।

[৪] তবে, পড়ে থাকেনি সৎকারের কাজ। আমি নিজে উপজেলার একতা নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের উঠতি বয়সের ছেলেদের সঙ্গেঁ নিয়ে ইসলামিক ফাউন্ডেশন ও রাজপাট এবং ওড়াকান্দির চেয়ারম্যানের সহায়তায় পল্লি চিকিৎসক বিমলের সৎকারের কাজ শেষ করেছি। এক প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে কাশিয়ানী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো, সাব্বির আহম্মেদ বলেন, পৃথিবীর সকল মানুষকেই একদিন মরতেই হবে। তাই এতো ভাবনা চিন্তা করে লাভ কি বলুন। চিকিৎসকের সৎকারের কাজে স্বজনেরা আসেননি সেটি একান্তই তাদের ব্যক্তিগত ব্যাপার। কিন্ত, সরকারের অর্পিত দায়িত্ব পালনকালে আমিতো আর ঘরে বসে থাকতে পারিনা। তাই তার সৎকারের কাজটি শেষ করলাম। আজ শুক্রবার (১০ জুলাই) সকালে নিজ বাড়িতে চিকিসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারী বিমল কৃষ্ণ ত্রিনাথের বাড়ি কাশিয়ানী উপজেলার রাজপাট ইউনিয়নের তেতুলিয়া গ্রামে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত