প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ভুতুড়ে বিদ্যুৎ বিল সমস্যার সমাধান না হলে ১৫ জুলাইয়ের পর কঠোর পদক্ষেপ: বিইআরসি

তাপসী রাবেয়া : [৩] বিদ্যুৎ বিলের বিভ্রাটে সংকটে পরেছে দেশের লাখো ভোক্তা। টাস্কফোর্স গঠন করে সমাধানের চেষ্টা করছে সরকার। তবে বিদ্যুৎ বিল নির্ধারণ করে দেওয়া প্রতিষ্ঠান এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন দৃশ্যমান কোনো উদ্যোগ গ্রহণ করেনি।

[৪] এ বিষয়ে জানতে চাইলে কমিশনের চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল বলেন, আমরা সব বিষয় পর্যবেক্ষণ করছি। ইতোমধ্যে কিছু ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। বিল ঠিক করে দেওয়ার পাশাপাশি দায়ীদের শাস্তির আওতায় আনা হচ্ছে।

[৫] কমিশনের আরেক সদস্য জানান, কমিশন সরাসরি এ বিষয়ে গণশুনানি করতে পারে না। আইনে এমন কোনও ধারা নেই। তবে গ্রাহক চাইলে পৃথক পৃথকভাবে অভিযোগ করতে পারেন। এসব অভিযোগের শুনানি হতে পারে।

[৬] তিনি আরও বলেন, বিদ্যুৎ বিল ঠিক করে দেওয়ার যেসব বিষয় আলোচনায় এসেছে তারা তা পর্যবেক্ষণে রেখেছে। এ বিষয়ে বিতরণ কোম্পানিকে নির্দেশনাও দিয়েছেন তারা। তাদের নির্দেশের পরই কমিটি করে দায়ীদের শাস্তি দেওয়া হয়েছে।

[৭] বিইআরসি আইন ২০০৩-এর অধ্যায় ১০-এ সালিশ-মীমাংসা এবং আপিলের ক্ষেত্রে বলা হয়েছে কেউ সংক্ষুব্ধ হলে কমিশন বরাবর নির্ধারিত পন্থা অনুসরণ করে আবেদন করতে পারেন। এক্ষেত্রে কমিশন তার লাইসেন্সের সঙ্গে শুনানির ব্যবস্থা করতে পারেন।

[৮] এদিকে, গ্রাহকের স্বার্থ রক্ষায় গত ২৪ মে বাংলাদেশ কনজুমার এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) কমিশনের কাছে এ বিষয়ে সমাধানের জন্য চিঠি দেয়। ওই সময় বিইআরসির পক্ষ থেকে বলা হয়, আইন অনুযায়ী এ ধরনের চিঠি তারা গ্রহণ করতে পারেন না। তবে তাদের অভিযোগ আমলে নিয়ে বিতরণ কোম্পানিগুলোকে বিলগুলো দ্রুত ঠিক করে দিতে বলে বিইআরসি।

[৯] জ্বালানি বিশেষজ্ঞ ও ক্যাব সদস্য শামসুল আলম বলেন, এই ঘটনায় ৪৫ দিন পরে অর্থাৎ ৯ জুলাইয়ের পর রাষ্ট্রপতি বরাবর এ বিষয়ে চিঠি দেবে ক্যাব। চিঠিতে কমিশনের সদস্যদের অযোগ্যতা তুলে ধরা হবে। তারা গ্রাহকের পক্ষে কিছুই করেনি তাও বলা হবে। সম্পাদনা : রায়হান রাজীব

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত