প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

তরুণীদের চাকা পাংচার করাই তার পেশা!

ডেস্ক রিপোর্ট : [১] এক নারীর গাড়ির চাকা পাংচার করার অভিযোগে ইয়োশিতো হারাদা (৩২) নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে জাপানের পুলিশ। জানা গেছে, গাড়ির চাকায় ছিদ্র করার পর ভালো মানুষের মতো ওই নারীকে ‘সহায়তা করতে’ এগিয়ে আসেন ইয়াশিতো। হংকংভিত্তিক গণমাধ্যম সাউথ চায়না মর্নি পোস্ট জানিয়েছে, শুক্রবার (৩ জুলাই) তাকে আটক করে জাপানের হিগাশিউরা শহরের পুলিশ। জাপানি গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, সুপারশপ থেকে বের হয়ে গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার বিষয়টি টের পান ওই নারী। কিছুক্ষণ পর চাকা পাল্টানোর কাজে তাকে সহায়তা করতে এগিয়ে আসেন ওই ব্যক্তি।

[২]কিন্তু সম্পূর্ণ অচেনা এক ব্যক্তির এমন সহায়ক ভূমিকা দেখে সন্দেহ হয় ওই নারীর। কারণ গত বছরের জুনেও একই ধরনের ঘটনার শিকার হয়েছিলেন তিনি। সেবারও তার গাড়ির চাকা সারাতে সহায়তা করেছিলেন এক ব্যক্তি। গত বছরের ব্যক্তিই এবার এসেছেন কি না, সে বিষয়ে নিশ্চিত হতে না পারলেও স্থানীয় পুলিশকে বিষয়টি জানানোর সিদ্ধান্ত নেন ওই নারী। পুলিশ তদন্ত করে সিসিটিভি ফুটেজে দেখতে পায় ওই নারীর গাড়ির চাকা ছিদ্র করেছিলেন ইয়োশিতোই। আরেকটি ফুটেজে দেখা যায়, ওই নারীকে অনুসরণ করে তাকে সহায়তার জন্য প্রথমেই এগিয়ে আসেন তিনি।

[৩]অভিযুক্ত ইয়োশিতোকে হানডা পুলিশ স্টেশনে রাখা হয়েছে। জাপানি গণমাধ্যম টোকাই টিভি বলছে, ওই নারীর সঙ্গে পরিচিত হতেই এমন ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে স্বীকার করেছেন অভিযুক্ত। জানা গেছে, ২০১৩ সালে মিয়োশি শহরে ইয়োশিতো হারাদা নামে এক ব্যক্তি একইভাবে নারীদের গাড়ির চাকায় ছিদ্র করে ধরা পড়েছিলেন। সেবার তাকে ১৮ মাসের কারাদণ্ড ভোগ করতে হয়েছিল।

[৪]তবে তদন্ত চলমান থাকায় সেই ব্যক্তিই এই ইয়োশিতো কি না সে বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি পুলিশ। তখন ওই ব্যক্তির আইনজীবী আদালতকে বলেছিলেন, “অন্তত ১ হাজার বার এমন ঘটনা ঘটিয়েছেন তার মক্কেল।” সেবার বড় অঙ্কের ৩০ হাজার ইয়েন জরিমানা দিয়ে ছাড়া পেয়েছিলেন ইয়াশিতো। সেইসঙ্গে তার চলাফেরা নজরদারিতে রাখতে হাতে জিপিএস ট্র্যাকার লাগিয়ে দেওয়া হয়েছিল।

সর্বাধিক পঠিত