প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পটিয়ায় শিক্ষার্থীদের ডেকে কোচিং চালুর অভিযোগ

মোহাম্মদ শাহজাহান, পটিয়া প্রতিনিধি : [২] সরকারি নির্দেশ অমান্য করে পটিয়ায় স্কুল শিক্ষার্থীদের ডেকে পুনরায় কোচিং ক্লাস চালু করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

[৩] মঙ্গলবার (৬ জুলাই) সকালে পৌর সদরের ঐতিয্যবাহী এ,এস. রাহাত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. শাহাদাত হোসেন কোচিং ক্লাস চালু করেন।

[৪] কোনো শিক্ষার্থী মুখে মাস্ক ও পিপিই ছিলো না। স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি সরওয়ার হায়দার থেকে মতামত না নিয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কোচিং ক্লাস চালু করেন। অথচ পটিয়া উপজেলাতে প্রতিদিন কোভিড-১৯ শনাক্ত হচ্ছে।

[৫] উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারহানা জাহান উপমা জানিয়েছেন, ভাইরাস মোকাবেলা করতে প্রতিদিন তৎপর রয়েছেন । কোনো শিক্ষার্থী আক্রান্ত হলে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা সরকারকে দোষারোপ করবে। যা সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হবে।

[৬] করোনাকালীন সময়ে স্কুলের অভ্যন্তরে কোচিং বন্ধসহ স্কুলের নিয়মিত ক্লাস বন্ধ থাকলেও ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের ব্যত্তিগত উদ্যোগে বর্তমানে গোপনে কোচিং ক্লাস চালু করেছে। কোচিং ক্লাসের ছবি সামাজিক মাধ্যম ভাইরাল হওয়ায়, বিষয়টি জানতে পেরে স্কুল কমিটির সভাপতি সরওয়ার হায়দার ইউএনও ও মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে জানো হয়।

[৭] কমিটির সদস্য আলী হোছাইন স্বীকার করে বলেন, অষ্টম শ্রেণির কিছু শিক্ষার্থীদের ভালো ফলাফলের জন্য ফ্রি কোচিং চালু করেছে। তবে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. শাহাদাত হোসেন কোচিং এর বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশনের কিছু কাজ থাকায় সই নেয়া হচ্ছে।

[৮] এ. এস. রাহাত আলী উচ্চ বিদ্যালয় কমিটির সভাপতি সরওয়ার হায়দার জানিয়েছেন, সরকারি নির্দেশ অমান্য করে প্রধান শিক্ষক স্কুলের ভিতরে কোচিং ক্লাস চালু করার বিষয়টি তিনি জানতে পেরেছেন। কোচিং ক্লাস একটি ছবি তিনি দেখতে পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে ফোনে অভিযোগ করেন। সরকারি নির্দেশ মেনে স্কুলের কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য শিক্ষকসহ কমিটির সকল সদস্যকে জানানো হয়েছে। কেউ নিজ উদ্যোগে কোচিং ক্লাস চালু করলে সেটার দায়ভার ওই ব্যক্তিকে নিতে হবে।

[৯] স্কুল কমিটি ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কোভিড-১৯ এর প্রার্দুভাব দেখা দেয়ার পর পটিয়া এ. এস. রাহাত আলী উচ্চ বিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। প্রাচীন এই স্কুলে ৬ষ্ঠ শ্রেণি থেকে ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত বর্তমানে প্রায় ২ হাজার ৫’শ শিক্ষার্থী রয়েছে। সম্পদনা : হ্যাপি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত