প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] যশোর শহরের বেজপাড়া চোপদার পাড়ায় মাদ্রাসা শিক্ষার্থী অপহরণের অভিযোগে মামলা

যশোর প্রতিনিধি: [২] জেলা শহরের বেজপাড়া এলাকার এক বাড়ি থেকে মাদ্রাসা শিক্ষার্থী সুবাইতা কবীর এশা (১৭) প্রকাশ্যে অপহরণের অভিযোগে কোতয়ালি থানায় মামলা হয়েছে। মামলায় ৩ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ২/৩ জনকে আসামি করা হয়েছে।

[৩] আসামিরা হচ্ছে, বেজপাড়া কবরস্থান রোড চোপদার পাড়া বিশ^াস পাড়ার শহিদের (রাজ মিস্ত্রী) ছেলে রিয়াজ, সদর উপজেলার রাজারহাট কচুয়া গ্রামের রোকনের স্ত্রী ও শহিদের মেয়ে শ্যামলী ও বেজপাড়া কবরস্থান রোড চোপদারপাড়া বিশ^াস পাড়ার মৃত আলকাসের ছেলে সোহেলসহ অজ্ঞাতনামা ২/৩ জন।

[৪] অপহৃতা মাদ্রাসার শিক্ষার্থীর পিতা বেজপাড়া কবরস্থান রোড চোপদার পাড়ার এনামুল কবির মুক্তি শুক্রবার ৩ জুলাই কোতয়ালি থানায় মামলা করেন।

[৫] মামলায় তিনি উল্লেখ করেছেন, তার মেয়ে সুবাইতা কবীর এশা আশ্রম রোড মহিলা মাদ্রাসা থেকে এ বছর এসএসসি পাশ করেছে। এশা মাদ্রাসায় আসা যাওয়া পথে রিয়াজ প্রেমের প্রস্তাবসহ বিয়ের প্রস্তাব দেয়। এশা প্রস্তাবে রাজী না হয়ে তার পিতা মাতাকে বলে। এশার পিতা মাতা রিয়াজ ও তার আত্মীয়স্বজনকে উত্যক্ত করতে বাধাঁ নিষেধ করে। রিয়াজ এতে ক্ষিপ্ত হয়ে অপহরণের সুযোগ খুঁজতে থাকে। রিয়াজের সহযোগীরা উল্টো রিয়াজকে উসকানী দেয়। গত ২৮ জুন এশা তার চাচা হুমায়ুন কবীরের বাড়িতে যাওয়ার সময় সকাল ৬ টায় বাড়ির সামনে অবস্থান কালে রিয়াজসহ তার সহযোগীরা একটি নাম্বার বিহীন প্রাইভেট কারে এশাকে ফুসলিয়ে তুলে নিয়ে রাজারহাটের দিকে চলে যায়।

[৬] এশাকে কারে তুলে নিয়ে যাওয়ার সময় এশার মা রুবিনা বেগম রক্ষা করতে এসে ব্যর্থ হয় বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে। এ ঘটনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়। তবে ২৪ ঘন্টা পার হলেও পুলিশ এশাকে উদ্ধার কিংবা অপহরণকারী রিয়াজকে গ্রেফতার করতে পারেনি। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত