প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] গতবারের চেয়ে এবার কোরবানী কম হবে, মৎস ও পশু সম্পদমন্ত্রী

সুজিৎ নন্দী : [২] দেশে এবার কোরবানিযোগ্য মোট পশু সংখ্যা এক কোটি ৯ লাখ ৪২ হাজার ৫শ’টি। প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর এ সংখ্যা নির্ধারণ করেছে। করোনা পরিস্থিতির কারণে এবার পশু চাহিদা অন্য সময়ের চেয়ে কম হবে, তাই কোরবানির পশু নিয়ে কোনো সংকট দেখছেন না সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। এদিকে, অনলাইনেও জমে উঠছে পশুর হাট।

[৪] মৎস ও পশু সম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেন, দেশে কোরবানীযোগ্য পশু পর্যাপ্ত। এবার কোরবানীর জন্য পশু আমদানি নয়, রপ্তানিযোগ্য পশু আছে। ধারণা করা যাচ্ছে গত বছরের তুলনায় এবার কোরবানি কম হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে বসবে হাট। তবে অনলাইনে এবার পশু কেনার প্রবণতা তৈরি হয়েছে।

[৫] ই-কমার্স একাধিক ব্যবসায়ী বলেন, দেশে অনলাইনে পশুর হাট শুরু হলেও গত কয়েক বছরে অনলাইনে পশুর হাটের জনপ্রিয়তা ঊর্ধ্বমুখী। করোনা পরিস্থিতির কারণেই এ বছর পশুর এই ভার্চুয়াল হাট নিয়ে অ্যাগ্রো ফার্মের স্বত্বাধিকারী থেকে শুরু করে প্রান্তিক খামারিদের আশা যেন আরেকটু বেশি। তাদের ধারণা, অনলাইনে পশুর হাটের কেনাকাটা এ বছর আগের সব ইতিহাসকে ছাপিয়ে যাবে।

[৭] গাবতলী হাটের বিশিষ্ট গরুর ব্যবসায়ি লুৎফর রহমান বলেন, পশু ব্যবসায়ীদের মধ্যে মারাত্মক হতাশা বিরাজ করছে। অন্যান্য বারের মতো এবার ব্যবসা হবে না।

[৮] অনলাইন ব্যবসায়ী আব্দুল করিম মজুমদার বলেন, দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে সম্পূর্ণ অর্গানিক গরু আমরা সংগ্রহ করব। কোনো ধরনের কৃত্রিম উপায়ে মোটাতাজা করা হয়নি এমন গরুই কেবল সংগ্রহ করব আমরা। আর যারা বুকিং দিচ্ছেন, ঈদের দু’দিন আগে তাদের বাসায় গরু পৌঁছে দেওয়া হবে।

[৯] বাংলাদেশ ডেইরি ফার্মাস অ্যাসোসিয়েশনের একাধিক নেতা জানান, এ বছর বেশ কয়েকটি কোম্পানি প্রফেশনালি ভার্চুয়াল গরুর হাট নিয়ে আসবে। এছাড়া শহরে যারা স্মার্টফোন ব্যবহার করে এমন খামারি বা অ্যাগ্রো ফার্মের স্বত্বাধিকারীরা তো এরই মধ্যে ফেসবুক বা বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে বিজ্ঞাপন দিতে শুরু করেছেন। গ্রামের খামারিরাও বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে যোগাযোগ করছেন। করোনায় অনেকেই হয়তো বাজারে গিয়ে বা হাট থেকে গরু কিনতে চাইবেন না। সম্পাদনা : রায়হান রাজীব

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত