প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সংসদের ভেতরে ও বাইরে পাপলুকে সংসদ থেকে বহিষ্কার ও আইনী ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি

মনিরুল ইসলাম : [২] মানবপাচার মামলায় কুয়েতের কারাগারে বন্দি লক্ষ্মীপুর-২ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য কাজী শহীদ ইসলাম পাপলুকে অবিলম্বে জাতীয় সংসদ থেকে বহিষ্কার ও তার বিরুদ্ধে কঠোর আইনী ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জোরদার হচ্ছে। জাতীয় সংসদের ভেতরে ও বাইরে এই দাবি জানানো হয়। ইতোমধ্যে এই দাবি জানিয়েছে বিএনপি, সিপিবিসহ টিআইবি।

[৩] গত ৬ জুন পাপলু কুয়েতে মানবপাচারের অভিযোগে আটক হবার পর থেকেই তার বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানাতে থাকে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল।

[৪] জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশনে ২৩ জুন মূল বাজেট আলোচনায় অংশ নিয়ে পাপলুর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রগণের দাবি জানান বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য মো হারহনুর রশীদ। তিনি বলেন, কুয়েত কারাগারে এই সংসদের একজন স্বতন্ত্র সংসদ আদমপাচারের অভিযোগে আটক রয়েছেন। এটা এই সংসদের সন্মানহানি করেছে। প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচনে এই সংসদ হয়েছে বিধায় এ রকম আদমপাচারকারীরা সদস্য হতে পেরেছেন। তিনি শুধু নন। তার স্ত্রীও স্বতন্ত্র সদস্য। এমন সংসদ না হলে তারা সংসদ সদস্য হয়ে জীবনেও আসতে পারতো না। তিনি তার বিরুদ্ধে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবার দাবি জানান।

[৫] এদিকে, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) পাপলুকে অবিলম্বে জাতীয় সংসদ থেকে বহিষ্কার করে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছে। গতকাল ২৭ জুন সিপিবির সাধারণ সম্পাদক কমরেড ডা. এম. এ সামাদ এ দাবি জানান। তিনি এক বিবৃতিতে কাজী শহীদ ইসলাম পাপলুর বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও মানবপাচারের অভিযোগের তদন্ত শুরু করে বিচারের মুখোমুখি করে বাংলাদেশের সন্মান বজায় রাখার দাবি জানিয়েছেন।

[৬] কমরেড ডা. এম. এ সামাদ বলেন, বাংলাদেশের এক সংসদ সদস্য মানবপাচারে জড়িত থাকায় এখন কুয়েতে জেলখানায় বন্দি। এতে আন্তর্জাতিক বিশ্বে বাংলাদেশের সম্মান ক্ষুণ্ন হয়েছে। আমরা বাংলাদেশের নাগরিকরা লজ্জিত।
সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে সিপিবির সাধারণ সম্পাদক বলেন, অবিলম্বে এমপি কাজী শহীদ ইসলাম পাপলুকে মহান জাতীয় সংসদ থেকে বহিষ্কার করে বিচারের আওতায় আনুন। তার অবৈধভাবে অর্জিত দেশে-বিদেশের সব সম্পদ বাজেয়াপ্ত করুন।

[৭] বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক ভার্চুয়াল প্রেসবিফ্রিংয়ে পাপলুর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে দাবি জানান। তিনি প্রশ্ন তুলেন কি করে এখনও তার সদস্যপদ বহাল রয়েছে। যার বিরুদ্ধে মানবপাচার ও বিদেশে অবৈধভাবে শত শত কোটি টাকা পাচারের অভিযোগ রয়েছে। শুধু অভিযোগই নয় তা আজ তদন্তে বের হয়ে আসছে।

[৮] অপরদিকে, গত ২৩ জুন কুয়েতে বন্দি পাপুলের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়া দাবিও জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)। সংস্থাটি বলছে, মানবপাচার ও অর্থপাচারের মতো আন্তর্জাতিক অপরাধ ও দুর্নীতির ঘটনায় সংসদ সদস্যের অভিযুক্ত হওয়াকে বাংলাদেশের রাজনীতি ও জনপ্রতিনিধিত্বে দুর্বৃত্তায়নের একটি অসম্মানজনক দৃষ্টান্ত।

[৯] টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড.ইফতেখারুজ্জামান বলেন, অতীতে কোনও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িত না থেকেই স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে নির্বাচিত হন অভিযুক্ত সংসদ সদস্য। তার স্ত্রীও সংরক্ষিত মহিলা আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে আসেন। কোন প্রক্রিয়ায় বা বিনিময়ে এই দম্পতি দলীয় সমর্থন বা মনোনয়ন পেলেন তা দায়িত্বশীলরা খতিয়ে দেখবেন বলে আমরা আশা করি।

[১০] তিনি বলেন, এই প্রবাসী শ্রমিকদের অবদানকে বিবেচনায় নিয়ে, দেশ ও জাতির প্রতি দায়বদ্ধতা থেকে সরকার কঠোর অবস্থান নেবেন, স্পীকারের উদ্যোগে অন্তত খতিয়ে দেখা হবে এই ঘটনা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত