প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড চালু রেখে ঢাকায় লকডাউন, নতুন ম্যাপিং হচ্ছে: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ডিজি 

লাইজুল ইসলাম : [২] লাল, হলুদ ও সবুজ এই তিন ভাগে ভাগ করে রাজধানীর ৪৫টি এলাকা চিহ্নিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সেই হিসেবে ম্যাপিংও শুরু হয় এসব এলাকার। পূর্ণাঙ্গ লকডাউন করার দায়িত্বে থাকবে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন। ১৪ জুন চিহ্নিত এলাকাগুলোর নামও প্রকাশ করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

[৩] কিন্তু ১৫ দিন না পেরুতেই সব কিছু পাল্টে যাচ্ছে। পূর্ণাঙ্গ লকডাউন না দিয়ে লাল এলাকায় দোকান ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান ও অফিস খোলা রাখার চিন্তা করা হচ্ছে। এটি করতে আবারও নতুন করে লকডাউন নীতিমালা তৈরি করার জন্য বলা হয়েছে। আগের ম্যাপিংয়েও আনা হচ্ছে পরিবর্তন। এলাকার নামেও আসছে পরিবর্তন।

[৪] বেশ কয়েকদিন আগে আইইডিসিআরের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডা. মুশতাক আহমেদ বলেছিলেন, জোনিংয়ের ম্যাপ করতে গিয়েও বাধা এসেছিলো প্রভাবশালীদের। আর কেনো স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জোন ঘোষণা করতে সময় নিচ্ছে সেটাই বুঝতে পারছি না।

[৫] স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সূত্র বলছে, ব্যবসায়ীদের চাপে নতুন করে জোনিং নিয়ে ভাবতে হচ্ছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে। [৬] স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদ গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, অর্থনৈতিক কর্মকাÐ পরিচালিত রেখে লকডাউনের চিন্তা করছি আমরা। এই বিষয়ে নির্দেশিকাও তৈরি করতে বলা হয়েছে। নতুন করে ম্যাপিংও হচ্ছে। এলাকার তালিকাও হালনাগাদ হবে। সম্পাদনা: ইকবাল খান

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত