প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ওয়েস্ট ইন্ডিজ ছিল বিশ্বসেরা দল, আমাদের কেউ হারাতে পারতো না : ক্লাইভ লয়েড

নিউজ ডেস্ক : [২] ওয়ানডে বিশ্বকাপের প্রথম দুই আসর অনুষ্ঠিত হয়েছিল যথাক্রমে ১৯৭৫ ও ১৯৭৯ সালে। প্রথম দুই আসরে বাজিমাত করে বিশ্বসেরা মুকুট পড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দু’বারই ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের অধিনায়ক ছিলেন কিংবদন্তি খেলোয়াড় ক্লাইভ লয়েড।

[৩] কিংবদন্তি ক্লাইভ লয়েড দাবি করেছেন, সে সময় ওয়েস্ট ইন্ডিজ ছিল বিশ্বসেরা দল এবং তাদেরকে হারানোর মতো ক্ষমতা কোন দলের ছিল না।

[৪] ১৯৭৫ সালের প্রথম বিশ্বকাপের ফাইনালে অস্ট্রেলিয়াকে ১৭ রানে হারিয়ে শিরোপা জিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ফাইনালে ৮৫ বল মোকাবেলায় ১২টি চার ও ২টি ছক্কায় ১০২ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেছিলেন অধিনায়ক লয়েড।

[৫] এরপর ১৯৭৯ সালে দ্বিতীয় বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে ৯২ রানে হারিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো শিরোপা জয় করে ক্যারিবীয়রা। সেই ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে সেঞ্চুরি করেছিলেন ভিভ রিচার্ডস। ১১টি চার ও ৩টি ছক্কায় ১৫৭ বলে অপরাজিত ১৩৮ রান করেন তিনি।

[৬] সত্তর-আশির দশকে বিশ্ব ক্রিকেটে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ছিল অপ্রতিরোধ্য একটি ক্রিকেট দল। বিশ্বের কোন দলই ওয়েস্ট ইন্ডিজের সামনে লড়াইয়ের ছিটেফটাও দেখাতে পারতো না। ৪৫ বছর এসে সেই সময়ের স্মৃতি রোমন্থন করলেন লয়েড।

[৭] কিংবদন্তি এই ক্রিকেটার বলেন, ‘প্রথম বিশ্বকাপজয়ী আমার দলের সকল সদস্যদের কাছে সেটা স্মরণীয় দিন। জীবনের সেরা দিনগুলোর একটা এই দিনটি। গোটা টুর্নামেন্টে আমরা অপরাজিত ছিলাম। লর্ডসে জেতাটা ছিল অসাধারণ। পরপর দু’টো বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হওয়া ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটের জন্য অনেক বড় ব্যাপার। আমাদের হাতে কাপ দেখতে যারা এসেছিলেন, এটা ছিল তাদের জন্যও বড় পাওয়া।’

[৮] সেই সময় ওয়েস্ট ইন্ডিজ যেমন ক্রিকেট খেলতো, তাতে কোন দলই লড়াই করতে পারতো না বলে জানান লয়েড। বলেন, ‘আমরা ছিলাম বিশ্বসেরা একটি দল। আমাদের কেউ হারাতে পারতো না।

[৯] বিশ্বের সব জায়গায় আমাদের সমীহ করা হতো। ক্যারিবীয়ানে নানা ক্ষেত্রে, অনেক গ্রেটের জন্ম হয়েছে। আমরাও তার মধ্যে আছি। আমরা ছিলাম খেলায় সাফল্যের প্রতীক। আমাদের জয়গুলো ছিল সমর্থকদের জন্য। শুধু আমাদের ক্রিকেটার বা দেশের জন্য নয়, আমাদের সাফল্য বিশ্বের নানা প্রাস্তের মানুষকে আনন্দ দিয়েছিল।’

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত