প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে কোভিড চিকিৎসার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

শাহীন খন্দকার ও লাইজুল ইসলাম : [২] সোমবার (২২ জুন) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কোভিড-১৯বিষয়ক নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত-মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা অনলাইন প্রেস ব্রিফিংয়ে জানালেন। তিনি বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের যে পরীক্ষাগারটির কার্যক্রম সাময়িকভাবে বন্ধ ছিল, তার কার্যক্রম পুনরায় শুরু হতে যাচ্ছে। সোমবার ৬২ টি পরীক্ষাগারে নমুনা সংগৃহীত হয়েছে মোট ১৬,২৮৭টি। আর পরীক্ষা হয়েছে ১৫,৫৫৫ এপর্যন্ত পরীক্ষা হয়েছে ৬,২৭,৭১৯টি। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২২.৩৭%। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থ্যতার হার ৪০.৩৮%। মৃত্যুর হার১.৩০%। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে আজ।

[৩] তিনি আইসোলেশনের তথ্য জানাতে গিয়ে বলেন, বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টারে দুইহাজার শয্যার আইসোলেশন সেন্টার চালু রয়েছে। সেখানে রোগীদের প্রয়োজনীয় অক্সিজেন সরবরাহ ব্যবস্থা রয়েছে। এদিকে মহাখালীতে অবস্থিত শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে কোভিড-১৯ ভাইরাসসংক্রমণে আক্রান্ত রোগী, চিকিৎসক এবং অন্যান্য স্বাস্থ্য কর্মীদের ভর্তির ব্যবস্থা চলমান আছে।

[৪] তিনি বলেন, বাড়িতে যদি করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি থাকে তবে বাড়িতেও অন্যান্য সদস্যদের মাস্ক পরতে হবে এবং ঘরের বাইরে। যারা আইসোলেশনে আছেন তারা কঠোরভাবে আইসোলেশনের নিয়মগুলো মেনে চলবেন। নিজের সুরক্ষা নিজের হাতে। তাই নিজেকে সুরক্ষিত রাখার জন্য বাইরে বের হলে সঠিকভাবে মাস্কপরিধান করার আহব্বান জানালেন।

[৫] সাবান-পানি দিয়ে ২০ সেকেন্ড ধরে হাত ধোয়া বা হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এই তিনটি প্রক্রিয়ায় সমানভাবে একসাথে চালিয়ে যেতে হবে। পরিবারে যারা বয়োঃবৃদ্ধ মানুষ আছেন তাদের দিকে বিশেষভাবে খেয়াল রাখতে হবে। কারন মৃত্যুহার পর্যালোচনায় দেখা যায় যে,ষাটোর্ধ্ব মানুষের মৃত্যুর হার বেশি এবং তাদের মৃত্যুর ঝুঁকি ও বেশি।

[৬] তিনি বলেন, যারা বয়োঃবৃদ্ধ আছেন এবং যাদের দীর্ঘমেয়াদী অসংক্রামক ব্যাধি যেমন, উচ্চ রক্তচাপ, কিডনি জটিলতা, শ্বাস-প্রশ্বাসের অসুখ, ক্যান্সার আছে তাদের প্রতি বিশেষ খেয়াল রাখতে হবে। সেই সাথে শিশু, গর্ভবতী মা ও স্তন্যদানকারী মায়েদের প্রতিও বিশেষভাবে খেয়াল রাখার পরামর্শ দিয়েছেন।

সর্বাধিক পঠিত