প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বিদ্যুতস্পৃষ্ট ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে মারা গেলেন মা-বাবা

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি: [২] বিদ্যুতস্পৃষ্ট ১০ বছরের ছেলে অনিককে বাঁচাতে গিয়ে প্রথমে মা ও পরে বাবা বিদ্যুৎ তায়িত হয়ে মারা গেছে। কিন্তু বেঁচে যায় ছেলে অনিক।  রোববার (২১ই জুন) সকালে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার বাঁশতৈল ইউনিয়নের অভিরামপুর গ্রামে এই হৃদয়বিদারক ঘটনা ঘটে।

[৩] ঘটনায় নিহতরা হলেন, অভিরামপুর গ্রামের মো. শাহজাহান মিয়া (৩৫) ও তার স্ত্রী বেলেনা বেগম (৩০)। এছাড়াও একই সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে আহত হয় এই দম্পতির ছেলে অনিক (১০)।

[৪] স্থানীয় বাসিন্দা আয়নাল হোসেন জানান, শাহজাহান মিয়া পেশায় একজন চা’দোকানদার। ব্যবসায়ের পাশাপাশি বাড়িতে কিছু মহিষও লালন-পালন করতেন। স্বাভাবিক দিনের মতো রোববার সকালেও শাহজাহান ও তার স্ত্রী মেষ চড়াতে বাড়ি থেকে বের হন। সঙ্গে রওনা হয় স্কুল পড়ুয়া সন্তান অনিক। গন্তব্যস্থল খোলা মাঠে পৌছানোর পর মেষ চড়ানোর এক পর্যায়ে বিদ্যুত উন্নয়ন বোর্ডের (ওয়াপদা) তারে বিদ্যুতস্পৃষ্ট হয় অনিক। ছেলেকে বাঁচাতে এগিয়ে যায় মা বেলেনা, তখন তিনিও বিদ্যুতস্পৃষ্ট হয়। এসময় আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে অনিক অন্যস্থানে ছিটকে পড়ে গেলেও স্ত্রী বেলেনা কোনোভাবেই যখন বিদ্যুতের তার থেকে নিজেকে আলাদা করতে পারছিলেন না তখন তাকে উদ্ধার করতে গেলে একইভাবে শাহজাহানও বিদ্যুতস্পৃষ্ট হয়। পরে সন্তান অনিকের ডাক-চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাদের উদ্ধার করে পাশ্ববর্তী একটি ক্লিনিকে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক বেলেনা বেগমকে মৃত ঘোষণা করেন এবং শাহজাহানকে গুরুতর অবস্থায় কুমুদিনী হাসপাতালে প্রেরণ করেন। তবে হাসপাতালে নেয়ার পথেই তারও মৃত্যু হয়।

[৫] বাঁশতৈল ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. সাইফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহতদের লাশ ময়না তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় একটি মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

সম্পাদনা: সারোয়ার জাহান

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত