প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] আমিরাতে বাংলাদেশি স্বেচ্ছাসেবক টিম প্রধান মামুনের কোভিড-১৯ জয়

ওবায়দুল হক, আমিরাত প্রতিনিধি : [২] কোভিড-১৯ জয় করে হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরলেন আমিরাতের দুবাই প্রবাসী বাংলাদেশি স্বেচ্ছাসেবক টিমের প্রধান মামুনুর রশীদ মামুন।

[৩] বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) সন্ধ্যায় দুবাইস্থ ইন্টারন্যাশনাল মর্ডান হসপিটাল থেকে সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরেন তিনি। মামুনুর রশীদ ১৫ দিন পূর্বে কোভিড-১৯ এর উপসর্গ নিয়ে জরুরি ভিত্তিতে হাসপাতালে ভর্তি হোন। হাসপাতালে কোভিড-১৯ টেস্ট করলে তার শরীরে সংক্রমণ ধরা পড়ে এবং সেখানে তাকে বিশেষ ব্যবস্থায় চিকিৎসা প্রদান করা হয়। গত ১৪ ও ১৬ জুন দুটি টেস্টে নেগেটিভ আসলে তিনি হাসপাতাল ত্যাগ করেন। হাসপাতাল ছাড়লেও কর্তৃপক্ষ তাকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশনা দিয়ে রেখেছে।

[৪] গত এপ্রিল-মে মাসে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বাণিজ্য নগরী দুবাইয়ের নাইফ এলাকা কে দুবাই সরকার কর্তৃক ‘রেড জোন এলাকা” বলে ঘোষণা করে লকডাউন করে দেয়।

[৫] সবাই যখন আত্মরক্ষায় লকডাউনে ঘরমুখি; তখন তিনি দুবাই প্রশাসনের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাথে লকডাউন এলাকায় বাংলাদেশি প্রবাসীদের স্বাস্থ্যসেবা ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ কমিউনিটির পক্ষ থেকে ‘বাংলা এক্সপ্রেস টিম’ নামের ১৯ সদস্যের একটি স্বেচ্ছাসেবক টিম গঠন করে প্রবাসীদের সেবায় ঝাপিয়ে পড়েন। দেশিয় প্রবাসীদের জন্য খাবার ও পানীয় সরবরাহে দিনরাত একাকার করেছেন তার টিম নিয়ে এ সাংবাদিক ও ‘বাংলা এক্সপ্রেস টিম’ স্বেচ্ছাসেবক টিম প্রধান।

[৬] উক্ত এলাকায় লকডাউন শেষ হলেও থেমে থাকেননি তিনি। বাংলাদেশি প্রবাসীদের কেউ কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হলে তাকে হাসপাতালে পৌঁছানো, পরীক্ষা কেন্দ্রে শিডিউল করে দেয়া এবং বাংলা এক্সপ্রেসের পক্ষ থেকে প্রতিদিন ত্রাণ ব্যাগ সহযোগিতার কাজ করেছেন। তিনি তার টিম নিয়ে আক্রান্ত হবার পূর্বক্ষণ পর্যন্ত চালিয়ে গেছেন। অবশেষে নিজেই আক্রান্ত হলেন তিনি।

[৭] এর আগে স্বেচ্ছাসেবক টিমের অন্যতম সদস্য কাজী ইসমাইল ও আরেক সদস্য কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছিলেন, চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে কর্মে যোগ দিয়েছেন তারা। সম্পাদনা : হ্যাপি

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত