প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ভারতীয় কিশোর শিভা প্রথম ই-মেল আবিস্কার করেন : চমস্কি

দেবদুলাল মুন্না:[২] নোম চমস্কি এ কথা লাইফ স্টোরিজের কাছে ইন্টারভিউতে বলেন গত শুক্রবার। তিনি বলেন, মার্কিন প্রযুক্তিবিদ রে টমলিনসন ‘ই-মেল’ এর মুল উদ্ভাবক নন। ভারতীয় কিশোর শিভা আয়াদুরাইয়ে মাত্র চৌদ্দ বছর বয়সেই ‘ই -মেল’ সিস্টেম তৈরি করেছিলেন। তিনিও এখন মার্কিন নাগরিক এবং একজন প্রযুক্তিবিদ।

[৩] চমস্কি বলেন, কিশোর শিভা তৈরি করে ফেলেছিল নিজস্ব সফটওয়্যার, যার সাহায্যে এক কম্পিউটার থেকে অন্য কম্পিউটারে দ্রæত চিঠি ও ফাইল পাঠান যাবে। আবিষ্কারের চার বছর পর, ১৯৮২ সালে শিভা আয়াদুরাই তাঁর সফটওয়্যারের কপিরাইট পেয়ে গিয়েছিলেন, যে সফটওয়্যারের নাম ছিল ঊগঅওখ। শিভার বয়স তখন মাত্র ১৯। তখন কিন্তু জনপ্রিয় হননি শিভা আয়াদুরাইয়ের ই-মেল।শিভা ১০৭৮ সালে বাবা-মায়ের সঙ্গে আমেরিকায় বসবাস শুরু করেন।

[৪] টেকডটনেট ও দ্যা ওয়াল জানায় সেসময় ই-মেল আবিষ্কারের দাবি করেছিলেন রে টমলিনসন। সংবাদ মাধ্যমে জানা গিয়েছিল শিভার ঊগঅওখ আবিষ্কারের ৭ বছর আগেই কম্পিউটারের মাধ্যমে অন্য কম্পিউটারে চিঠি পাঠানো শুরু করেছিলেন রে টমলিনসন।

[৬] ‘রেথিয়ন’ নামে এক প্রযুক্তি কোম্পানির হয়ে অজচঅঘঊঞ নামের প্রথম যুগের ইন্টারনেটের সাহায্যে ই-মেল পাঠিয়ে ছিলেন কম্পিউটার পোগ্রামিং-এর পথিকৃত রে টমলিনসন। মার্কিন সেনাদের জন্যই রে টমলিনসন তৈরি করেছিলেন এই সুরক্ষিত ই-মেল পদ্ধতি।

[৭] কিন্তু ২০১১ সালে টাইম ম্যাগাজিন শিভা আয়াদুরাইয়ের একটি সাক্ষাৎকার নিয়েছিল, যেটির শিরোনাম ছিল, ‘দ্য মান হু ইনভেন্টেড ই-মেল’, সেই সাক্ষাৎকারে বলা হয়েছিল শিভা আয়াদুরাইয়ের ইমেইল-ই বর্তমান ইমেলের জনক।

[৮]আয়াদুরাই বরাবর দাবি করছেন, রে টমলিনসন কেবলমাত্র টেক্সট মেসেজ পাঠানোর পদ্ধতি আবিষ্কার করেছিলেন। আজকের যে ফরম্যাটে ই-মেল পাঠানো হয় সেই ই-মেল তার আবিষ্কার। ই-মেলের সব ফিচার, যেমন পপ ,ধঃঃধপযসবহঃং, ওহনড়ী, ঙঁঃনড়ী, ঋড়ষফবৎং, তাঁর আবিষ্কার।

[৯] কিন্তু গত বুধবার ওয়াশিংটন পোস্ট ও দ্য স্মিথসোনিয়ান ইন্সটিটিউশন জানায়, রে টমলিনসনের টা ছিল বষবপঃৎড়হরপ সধরষ । ২০১৬ সালে মারা যান রে টমলিনসন।

[১০] আয়াদুরাইয়ের বয়েস এখন ৫৬। সিস্টেম বায়োলজি,কম্পিউটার সায়েন্স, সায়েন্টিফিক ভিশুয়ালাইজেশন ও ট্রাডিশনাল মেডিসিনে তার বিশ্বজোড়া নাম।নোয়াম চমস্কি ওই ইন্টারভিউতে বলেন, শিভা আয়াদুরাইয়ের কৃতিত্বকে হেয় করার পিছনে আছে জাতিবিদ্বেষ ও বর্ণবৈষম্য।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত