প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] হাটহাজারী পৌর সদরে সর্বোচ্চ কোভিড১৯ শনাক্ত

মোহাম্মদ হোসেন, হাটহাজারী প্রতিনিধি: [২] জুনের প্রথম দিনে পৌর এলাকার বিভিন্ন ওয়ার্ডে সব চেয়ে বেশি লোকজন আক্রান্ত হয়েছেন। উপজেলা প্রশাসন এলাকার পরিস্থিতি অবনতি দেখে লকডাউন জারী করার পর থেকে প্রশাসনের সাড়াশি অভিযানের সময় লোকজনের মধ্যে কিছুটা ভয় ও আতংক
ছিল।

[৩] লকডাউনের করেন।তার পরেও প্রশাসনের নিয়মিত অভিযানের তোয়াক্কা না করে যারা শপিং করেছেন,দোকান খুলেছেন,এখানে সেখানে আড্ডা দিয়েছেন এবং শহরে আসা যাওয়া করে চাকুরী করেছেন তাদের কারনে আজ করোনার হটস্পট হিসেবে চিহিৃত হচ্ছে এই উপজেলা।উপজেলা হাসপাতালে গত ৩১ মে ৩ জন ও ১ জুন ১৯জন মোট ২২ জনের করোনা সনাক্ত হয়েছেন। পৌর সদরের বিভিন্ন ওয়ার্ডে একদিনে সব্বের্চ ১৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

[৪] এ দিকে করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ রুপ নিলেও পরিবর্তন দেখা যাচ্ছে না মানুষের সামাজিক দুরত্ব। যেখানে সেখানে লোকজন জড়ো হচ্ছে,আড্ডা দিচ্ছে,গাদাগাদি করে বাজার করছে। কিছু মানুষ স্বাস্থ্যবিধি মানছে, আবার কেউ মানছে না। ফলে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছেন এই এলাকার মানুষের। সামাজিক দূরত্ব বজায় না রেখে গাদাগাদি করে গায়ে গা ঘেঁষে কেনাকাটা করছে ক্রেতারা। বাজারের প্রায় সব দোকানেই ঠিক একই রকমের চিত্র দেখা গেছে।মার্কেটে বিভিন্ন দোকানে ভিড়, স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা নেই।

[৫] হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুহুল আমিন বলেন, প্রশাসনের যৌথ অভিযান
দিবারাত্রী মানুষকে হাতে ধরে মিনতি করে ঘর থেকে বের না হাওয়ার নির্দেশ দেন। বাজারে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে কেনাকাটা করার নির্দেশ দেন এর পরেও এক দিকে অভিযান অন্য দিকে ফের রাস্তায় অহেতুক ঘুরাফেরা,মার্কেট এর বাইরে গেটম্যান রেখে ভিতরে দোকান খোলা,কেনাকাটা করছে একজনের সাথে গাদাগাদি করে আরেকজন দ্রুত ক্রয় করছে কাপড়,সুযোগ নিয়ে কৌশলে দ্রুত বেচাকেনা করছেন কিছু ব্যবসায়ী অথছ বাইরে থেকে দেখবেন মার্কেট বন্ধ।তিনি বর্তমান পরিস্থিতিতের চেয়েও আরো ভয়াবহ হতে পারত হাটহাজারী তবে প্রশাসনের জোরালো অভিযানের ফলে চরম অবনতি হতে দেয়নি।

[৬] হাটহাজারী উপজলো স্বাস্থ্য ও পরবিার পরকিল্পনা র্কমর্কতা ডা. ইমতয়িাজ হােসাইন বলেন, নমুনা পরীক্ষা গত দুই দিনে মোট ২২ জন আক্রান্ত হয়েছেন,১৬ থেকে ৪০ বছর বয়সের ১৩ জন,৪০ থেকে৫০ বছরের ৪ জন,৫০ থেকে ৫২ বছরের ২ জন,৫৮ বছরের ১ জন ও ৭০ থেকে ৭৬ বছর বয়সের মধ্যে ২ জন। হাটহাজারীতে এ পর্যন্ত ১৬৪ জন কেরানায় আক্রান্ত হয়েছেন। সবাইকে সরকারের নির্দেশনা মেনে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে চলাফেরা করার অনুরোধ জানায় তিনি। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

সর্বাধিক পঠিত