প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১]অস্ট্রেলিয়া ফেরত গৃহবধুর মামলায় স্বামী-শ্বশুর-শ্বাশুড়ী ও দেবর গ্রেপ্তার

ছনি চৌধুরী : [২] হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়ীএবং দেবরদের নির্যাতনের শিকার অস্ট্রেলিয়া ফেরৎ গৃহবধু ডাক্তার কন্যা অনুস্পিতা দেবের মায়ের মামলায় ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে নবীগঞ্জ থানা পুলিশ। আজ সোমবার (০১ জুন) সকাল ৭ টায় উপজেলার সৈয়দপুর বাজার থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

[৩] উল্লেখ্য, এ ঘটনায় অনুস্পিতার মা সঞ্চিতা ধর নবীগঞ্জ থানায় উল্লেখিত ৫ জনের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন আইনের ১১(গ) ধারায় মামলা দায়ের করেন। উক্ত মামলায় দীর্ঘদিন পলাতক থাকার পর সোমবার সকাল ৭ টায় উপজেলার সৈয়দপুর বাজার থেকে পুলিশ ৪ জনকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃতরা হলো অনুস্পিতা দেব’র স্বামী অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী ধনঞ্জয় দেব (২৯), ভাসুর দীপক দেব (৩৭), শ্বশুর ধীরেন্দ্র দেব (৬০) ও শাশুড়ি মিনতি রানী দেব (৫৫)। তাদের কোর্ট হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনাটি জানাজানি হলে শহরে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে।

[৪] সূত্রে জানাযায়, নবীগঞ্জ পৌরসভার গয়াহরি গ্রামের ধীরেন্দ্র চন্দ্র দেব এর অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী ছেলে ধনঞ্জয় চন্দ্র দেব প্রায় ১ বছর পুর্বে বিয়ে করেন উপজেলার বদরদী গ্রামের বাসিন্দা হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালের সাবেক তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ রথীন্দ্র চন্দ্র দেব এর উচ্চ শিক্ষিত কন্যা অনুস্পিতা দেব অনু’কে। বিয়ের ৩ মাসের মধ্যে নববধুকে নিয়ে অষ্ট্রেলিয়া চলে যায় ধনঞ্জয় দেব। বিয়ের পর স্বামী-স্ত্রী উভয়ই সুখী জীপন যাপন করছিলেন। কিন্তু অস্ট্রেলিয়া যাবার পর ধনঞ্জয় স্ত্রীর উপর শুরু করে নানা নির্যতন ও অত্যাচার। এতে সায় দিত ভাসুর, দেবর, শ্বশুর ও শাশুড়ি। গত ১৭ মার্চ স্ত্রী অনুস্পিতা দেবকে সাথে নিয়ে স্বদেশে ফিরেন স্বামী ধলঞ্জয় দেব। ওই দিন রাত ১০.৩০ ঘটিকায় ঢাকা শাহজালাল আর্ন্তজাতিক বিমান বন্দর পৌছার পর স্ত্রীকে ধোকা দিয়ে স্বামী ধনঞ্জয় দেব অনুস্পিতার পাসপোর্টসহ তাকে এয়ারপোর্ট রেখেই পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় হতভম্ভ স্ত্রী অনুস্পিতা দেব দিশেহারা হয়ে পড়েন । স্বামী ধনঞ্জয় দেব এর মোবাইল ফোনের সুইচ অফ থাকায় বাধ্য হয়ে ফোন দেন অনু’র পিতা-মাতাকে। এক পর্যায়ে বিমান বন্দরে স্থাপিত কোয়ারেন্টিনে করোনা ভাইরাস পরীক্ষা শেষে বিগত ১৯ মার্চ বৃহস্পতিবার দুপুরে মা’কে সাথে নিয়ে শ্বশুরবাড়ি গয়াহরি গ্রামে আসেন স্ত্রী অনুস্পিতা দেব অনু। কিন্তু শ্বশুরবাড়ির লোকজন পুত্রবধুকে ঘরে না তোলে গেইটে তালাবদ্ধ করে রাখে। অনু ঘরে ঢুকার চেষ্টা করলে শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করে বলে অভিযোগ উঠে। খবর পেয়ে পুলিশ, এলাকাবাসী, পৌর মেয়রসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক সামাজিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। তবে পুত্রবধুকে ঘরে না তোলে শেষ পর্যন্ত পিত্রালয়ে পাঠিয়ে দেয়া হয়। এ ঘটনাটি এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়। এদিকে এ ঘটনায় অনুস্পিতার মা সঞ্চিতা ধর বাদী হয়ে নবীগঞ্জ থানায় বিগত ২৩/০৩/২০২০ইং তারিখে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ তাৎক্ষনিকভাবে অনুস্পিতার দেবর দিপংকর দেব (২৭) কে গ্রেফতার করেন। অপর আসামীরা আত্মগোপন করে। সোমবার সকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ওসি (তদন্ত) উত্তম কুমার দাশের নেতৃত্বে একদল পুলিশ উপজেলার আউশকান্দির সৈয়দপুর বাজার থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করেন। পরে তাদেরকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত