প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কামরুল হাসান মামুন : সরকার কোন ভাবনা থেকে সবকিছু খুলে দিচ্ছে আমার মাথায় ঢুকছে না

কামরুল হাসান মামুন : ‘রেকর্ড সংখ্যক টেস্ট করিয়ে রেকর্ড সংখ্যক করোনা শনাক্ত।’ একদিনে ২৫০০ শনাক্ত। টের পাচ্ছেন কি ভয়াবহ দিন আসছে? সরকার কোন ভাবনা থেকে সব কিছু খুলে দিচ্ছে আমার মাথায় ঢুকছে না। অনেকদিন ধরে বলতেছিলাম যে যত বেশি পরীক্ষা করবেন তত বেশি শনাক্ত হবে। মার্চের মাঝামাঝি যদি ১০ হাজার করে টেস্ট করিয়ে শনাক্তদের আলাদা করে রাখতে পারতাম, তাহলে তখনও লক ডাউনের প্রয়োজন হতো না এবং আজকের অবস্থায় আসতামই না। আর আজকে যদি ৫০ থেকে ৮০ হাজার টেস্ট কিংবা ১ লাখ টেস্ট প্রতিদিন করাতে পড়তাম, তাহলেও লকডাউনের প্রয়োজন নেই। কিন্তু আমরাতো কোনো মডেলই ফলো করছি না। যৎসামান্য টেস্ট করিয়ে যদি সব কিছু খুলে দিই দেশের ডিজাস্টার আসবে যেটা আমরা হ্যান্ডেল করতে পারব না। যে অর্থনীতি বাঁচানোর জন্য সব কিছু খুলে দিলাম, সেই অর্থিনীতি এবং সাথে জীবনের মৃত্যু ঘটবে।
আমি যখন ১৩ মার্চে বলেছিলাম, ইতালি ফেরতদের কোয়ারান্টিনে নিন। তখন তাদের চার কিংবা পাঁচ তারকা হোটেলে কোয়ারান্টিনে নিতে কতো খরচ হতো? আমার কথা শুনেননি। সামান্য টাকা বাঁচাতে গিয়ে আজ আমরা জীবন এবং জীবিকা দুটোরই বিপর্যয় ডেকে নিয়ে আসছি। এখন আমাদের একটি ভালো পথই খোলা আছে। সেটা হলো লাখ লাখ টেস্ট করে শনাক্তদের আইসোলেট করে বাকিদের স্বাভাবিক জীবনে থাকতে দিন। আমাদের কিছু মিডিয়া ও বুদ্ধিজীবী আছে যারা আগে দেখে সরকার কি করতে চাচ্ছে। এইটা বোঝা হয়ে গেলে সরকারের আগে সরকারের ইচ্ছাকে জনপ্রিয় করতে লুঙ্গি কাঁচা দিয়ে লেগে পরে। গায়ে লুঙ্গি আছে কিনা সেদিকেও নজর থাকে না। এরা এতো দলদাস হয় কীভাবে? আমার কাছে এদের দেশদ্রোহী মনে হয়। যা হচ্ছে তা দেখে মনে হচ্ছে আমরা এখন ডারউইন তত্বের উপর সব ছেড়ে দিয়েছি। আমাদের সবাইকে এখন গ্ল্যাডিয়েটর হতে হবে। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত