প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কালিয়ায় ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা, কৃষকলীগ নেতাসহ আহত তিন, ৪৮ ঘন্টায় গ্রেপ্তার হয়নি কেউ

কালিয়া প্রতিনিধি: [২] এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও পূর্বশত্রুতার জের ধরে নড়াইলের নড়াগাতি থানার কলাবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৩ নং ওয়ার্ডের সদস্য ও কলাবাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা কাইয়ূম সিকদারকে (৪৮) কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা। ওৎ পেতে থাকা প্রতিপক্ষরা মোটরসাইকেলে গতিরোধ করে মঙ্গলবার (২৬ মে) রাত ৯টার দিকে নড়াগাতি থানার কালিনগর এলাকায় কাইয়ূমকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে।

[৩] গুরুতর জখম কাইয়ূমকে কালিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হলে তার মৃত্যু হয়। তার হাত, পা, মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। কাইয়ূম নড়াগাতির বিলাফর গ্রামের হাসু সিকদারের ছেলে। এ সময় নড়াগাতি থানা কৃষকলীগের সভাপতি কলাবাড়িয়া গ্রামের আবুল হাসনাত মোল্যা (৪০) এবং একই গ্রামের আপন দুই ভাই মতিয়ার মল্লিক (৪২) ও সজীব মল্লিককে (২৮) কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে প্রতিপক্ষরা।

[৪] এ ঘটনায় ৪৮ ঘন্টায় (২৬ মে রাত ৯ টা থেকে ২৮ মে বিকাল ৫ টা) কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনাই পুলিশ।

[৫] পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, দু’টি মোটরসাইকেল যোগে নড়াইলের কালিয়া উপজেলা সদর থেকে বাড়িতে ফেরার পথে কালিনগর এলাকায় ওৎপেতে থাকা প্রতিপক্ষরা পথরোধ করে কাইয়ূম সিকদারসহ চারজনকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। এর মধ্যে কাইয়ূম সিকদারকে কালিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হলে তার মৃত্যু হয়। এছাড়া কৃষকলীগের নেতা আবুল হাসনাত মোল্যা, মতিয়ার ও সজীব মল্লিককে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে আবুল হাসনাত মোল্যার অবস্থা গুরুতর বলে জানিয়েছেন তার স্বজন ও চিকিৎসকেরা।

[৬] এ ব্যাপারে নড়াগাতী থানার অফিসার ইনচার্জ মোসা: রোকসানা খাতুন বলেন ঘটনার ২ দিনেও কোন অভিযোগ পাওয়া যায় নাই অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। সম্পাদনা : জেরিন আহমেদ

সর্বাধিক পঠিত