প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ২০২০-২১ সালের বাজেটে স্বাস্থ্য ও শিক্ষাখাতকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে জিডিপির ৫শতাংশ বরাদ্দের দাবি আমির খসরু’র

শাহানুজ্জামান টিটু : [২] বিএনপির এই নীতিনির্ধারকর বলেন, আগামী অর্থ বছরের বাজেটে অবশ্যই অগ্রাধিকারভিত্তিতে সরকারকে স্বাস্থ্য ও শিক্ষাখাতে সর্বোচ্চ বরাদ্দ দিতে হবে। একটা জাতিকে যদি সাসটেইনেবল ভাবে অগ্রগতির পথে যেতে হয় তাহলে শিক্ষা ও স্বাস্থ্য এই দুইটাই হচ্ছে মূল ভিত্তি।

[৩] আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, মানুষের যেমন স্বাস্থ্য থাকতে হবে, তেমন শিক্ষাও থাকতে হবে এবং তাদেরকে শিক্ষিত করে জনসম্পদে পরিণত করে দেশটাকে ডেভেলপ করতে হবে। এই জায়গাতেই আমাদের দুর্বলতা অনেক বেশি।

[৪] বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, স্বাস্থ্য ব্যবস্থা একেবারেই ভেঙে পড়েছে। এতোটা দুর্বল আমরা এই করোনা কালে তা বুঝতে পেরেছি , স্বাস্থ্য খাত কোন জায়গায় গিয়ে পৌঁছেছে। যেমন ধরুন ডাক্তার নার্স স্বাস্থ্যকর্মীসহ হাসপাতালগুলোর যে অবস্থা এগুলো সত্যিকার ভাবে পরিচালনা করা এবং কোথায় কি পরিমাণে ইকুপমেন্ট প্রয়োজন সেটার উপরে জোর দেওয়া।

[৫] তিনি বলেন, হাসপাতালের জন্য যেগুলো কেনা হয়েছে এগুলোর ক্রয় প্রক্রিয়াটি প্রশ্নবিদ্ধ। যে কাজগুলো হয়েছে তা দুর্নীতির মাধ্যমে একটা বিশাল অংশ চলে গেছে। সুতরাং স্বাস্থ্য ও শিক্ষা এই দুই খাতে প্রকৃত অর্থে বিনিয়োগ করতে না পারলে বাকি কাজগুলো সাসটেইনেবল হবে না। সেটা চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে স্বাস্থ্য খাতে।

[৬]আগামী অর্থ বছরের বাজেট ভাবনায় এ কথা বলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

সর্বাধিক পঠিত