প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বায়তুল মোকাররমে পর্যায়ক্রমে ঈদের ৫টি জামাত, পুলিশের ১৪ নির্দেশনা

আব্দুল্লাহ মামুন : [২] প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৭টায়। করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে এবার জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদের কোনো জামাত অনুষ্ঠিত হবে না। রোববার (২৪ মে) ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সহকারী জনসংযোগ কর্মকর্তা শায়লা শারমীন এই তথ্য জানিয়েছেন । পুলিশের নির্দেশনা ও স্যাস্থবিধি মেনে জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

[৩] প্রতি ১ ঘণ্টা পর পর মোট পাঁচটি জামাআত অনুষ্ঠিত হবে দিন । প্রথম জামাতে নামাজ পড়াবেন ইমাম হাফেয মুফতি মাওলানা মিজানুর রহমান। দ্বিতীয় জামাতে ইমাম হাফেয মুফতি মুহিবুল্লাহিল বাকী নদভী। তৃতীয় জামাত ইমাম হাফেয মাওলানা এহসানুল হক। চতুর্থ জামাতে ইমাম মাওলানা মহিউদ্দিন কাসেমশেষ জামাতে নামাজ পড়াবেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মুহাদ্দিস হাফেয মাওলানা ওয়ালিয়ুর রহমান খান।

[৪] ঈদের নামাজের জামায়াতের পূর্বে সম্পূর্ণ মসজিদ জীবানুনাশক দ্বারা পরিস্কার করতে হবে। ঈদের নামাজের জামায়াতের সময় মসজিদে কার্পেট বিছানো যাবে না। ধর্মপ্রাণ মুসল্লিগণ প্রত্যেকে নিজ নিজ দায়িত্বে জায়নামাজ নিয়ে আসবেন। মসজিদে সংরক্ষিত জায়নামাজ ও টুপি ব্যবহার করা যাবে না। করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধ নিশ্চিতকল্পে মসজিদে প্রবেশদ্বারে সাবান, হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখতে হবে।

[৫] মসজিদের ওযু খানা ব্যবহার না করে প্রত্যেককে নিজ নিজ বাসস্থান থেকে ওযু করে মসজিদে আসতে হবে এবং ওযু করার সময় কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে। ঈদের নামাজের জামায়াতে আগত ধর্মপ্রাণ মুসল্লীগণকে অবশ্যই মাস্ক পরে মসজিদে আসতে হবে। ঈদের নামাজ আদায়ের সময় কাতারে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে সামাজিক দুরুত্ব ও স্বাস্থ্য বিধি অনুসরণ করে দাঁড়াতে হবে। এক কাতার অন্তর অন্তর কাতারবদ্ধ হতে হবে।

[৬] করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে মসজিদে জামায়াত শেষে কোলাকুলি এবং পরস্পর হাত মেলানো থেকে বিরত থাকুন।