প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পজিটিভ থেকে ওষুধ সেবনের তিন দিনপর করোনার রেজাল্ট নেগেটিভ পেয়েছি

লাইজুল ইসলাম : [২] হঠাৎ করে রাতে শ্বাস গ্রহণে একটু সমস্যা হচ্ছে বলে মনে হচ্ছিলো ৮ মে শুক্রবার দিবাগত রাতে। এরপর ১১ মে সোমবার নমুনা দেই। ১৬ মে ইফতারের পর জানতে পারি করোনা পজেটিভ।

[৩] জানালাম সম্পাদক মহদয়কে। তিনি সাহস দিলেন। হাসপাতালে ভর্তী হতে হলে সে ব্যবস্থা করে দিবেন। পরিচিত চিকিৎসকদের সঙ্গে আলোচনা করতে পরামর্শ দিলেন।

[৪] বেশ কয়েকজন চিকিৎসকের সঙ্গে আলাপ করলাম। রিজেন্ট হাসপাতালের তারিক ভাইকওে ফোন দিলাম। তিনি বললেন, কোনো চিন্তুা করবে না। অক্সিজেন সিলিন্ডার লাগলে বলবেন বাসায় পাঠিয়ে দিবো। চিকিৎসকের নাম্বার দিয়ে বললেন ২৪ ঘন্টা কথা বলবেন এই চিকিৎসকের সঙ্গে। তিনি আপনার জন্য ফিক্সড। খুবই সাহস পেলাম। রিজেন্টের চিকিৎসক বেশ কিছু পরামর্শ দিলেন। সকালে কি কি ওষুধ নিবো তা এসএমএস করলেন।

[৫] রবিবার (১৭ মে) সকালে বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বক্ষব্যাধি বিশেষজ্ঞ ডা. তারেক আলমকে জানালাম। তিনি রাতে ওষুধের প্রেসক্লিপশন এসএমএস করে দিলেন। আইভরমেকটি ৬ এমজি তিনটি, ডক্সিসাইক্লিন ১০০ এমজি ১০টি, প্যান্টনিক্স ৪০ এমজি ১০টি ও ওমিডম ১০টি।

[৬] সোমবার (১৮ মে) সকালে এক ডোজে দুটি ওষুধ। এরপর দুপুরে খাওয়ার আগে দুটি ও খাওয়ার পর একটি। রাতে একটি। বলে রাখি সকাল ও রাতে যে ওষুধ তিনটি খেলাম এটি আর পরে খাইনি। মানে আর খাওয়া লাগবে না বলে নিদের্শনা দিয়েছিলেন চিকিৎসক। এরপর ১৯, ২০ মে শুধু দুপুরে ওষুধ সেবন করেছি।

[৭] বৃহস্পতিবার (২১ মে) প্রেসক্লাবে গিয়ে নমুন দিলাম। রবিবার (২৪ মে) জানতে পারলাম আমার কোভিড-১৯ নেগেটিভ। মানে ১৮-২০ তিন দিনে করোনা পজেটিভ থেকে নেগেটিভ। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ খাওয়া ঠিক হবে না।

[৮] অতি অবশ্যই প্রবল সাহস রাখতে হবে। নিয়ম মেনে চলতে হবে। ব্যাম করতে হবে। ভিটামিন সি ও প্রোটিন জাতীয় খাবার বেশি খেতে হবে। মসলা দিয়ে তৈরি গরম পানির ভাপ, মসলা দিয়ে তৈরি চায়ের মত গরম পানি খেতে হবে। সারাদিন কুসুম গরম পানি খেতে হবে। মধু, কালোজিরা খেতে হবে।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত