প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] প্রধানমন্ত্রীর কোভিড ১৯ ত্রাণ প্যাকেজ ঘোষণার পর বাংলাদেশ ব্যাংক ৯৩টি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে, যাতে ঋণগুলো যথাযথভাবে প্রকৃত মানুষের হাতে যায়

বিশ্বজিৎ দত্ত : [২] এই কাজটিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবীর। আগামী ২ বছর ত্রাণ প্যাকেজের সমন্বয় ও তার অর্থনৈতিক ইমপেক্ট নিয়েও তিনি কাজ করেছেন বর্তমান অর্থ সচিব আব্দুর রউফের সঙ্গে।

[৩] এই ২টি বিষয় বিবেচনায় নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বরাবর বর্তমান গভর্নরের মেয়াদ আরো ২ বছর বৃদ্ধির জন্য সুপারিশ পাঠিয়েছে অর্থমন্ত্রণালয়। সেখানে বলা হয়েছে, ২০০৩ সালে ব্যাংক অর্ডার সংশোধনের মাধ্যমে গভর্নরের বয়স বেঁেধ দেয়া হয়েছিল। বিশ্বের অধিকাংশ দেশ এমনকি ভারতেও গভর্নরের বয়স বেঁধে দেয়ার নজির নেই। এমনটাই জানিয়েছেন, অর্থবিভাগের একজন ঊচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা।

[৪] গভর্নর ফজলে কবীরের চুক্তি শেষ হচ্ছে ৩ জুলাই। এসময়ে তার বয়সও ৬৫ পার হবে। বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর নিয়োগের কোন নীতিমালা নেই। শুধু বয়সের নীতিটাই রয়েছে।

[৫] সাবেক গভর্নর সালেহ উদ্দিন জানিয়েছেন, দেশে অনেক গভর্নরই ৬৫ এর উপরের বয়সে কাজ করেছেন। গভর্নর নূরুল ইসলাম ১১ বছর গভর্নর ছিলেন। বয়স কেন বেঁধে দেয়া হয়েছে তা তিনি জানেন না বলে জানান।

[৬] বিশ্বে গভর্নর নিয়োগের নানা রকম বিষয় আছে। তবে যুক্তরাজ্যের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গর্ভনর ম্যাককর্ণ ছিলেন কানাডার নাগরিক। তিনি ২০০৮ সালে আর্থিক দূরাবস্থা থেকে কানাডাকে উদ্ধার করেছিলেন। এরজন্য যুক্তরাষ্ট্র তাকে ডেকে এনে গভর্ণর বানিয়ে দেয়।

[৭] আবার লেবাননের তৌফিক রিয়াদ ১৯৯৯ সাল থেকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নও হিসাবে কাজ করছেন। সেখানে গভর্নরের মেয়াদ ৬ বছর। কিন্তু সরকার তাকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত নিয়োগ দিয়েছে। সম্প্রতি লেবাননের আর্থিক দূরাবস্থার জন্য জনগন তার মূদ্রানীতিকেই দোষারুপ করছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত