প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ২০২১ সালে বাংলাদেশের জিডিপি হার হবে ৯ দশমিক ৫ শতাংশ  

বিশ্বজিৎ দত্ত : [২] অর্থনীতিবিদ ড. বিনায়ক সেন বলেছেন, আইএমএফের প্রোজেকশানটি হয়েছে আগের বছরের ২ প্রবৃদ্ধির হার ধরে। অর্থাৎ আগের বছর ২০১৯ সালে বৃদ্ধি ছিল ৭ দশমিক ৯ শতাংশ। ২০২০ এ ২ শতাংশ। দেশের জনসংখ্যা বৃদ্ধির হারও ২ শতাংশ। এই হিসাবে আসলে মাথা পিছু প্রবৃদ্ধির হার হবে জিরো। এখন ২০২১ সালে যদি অর্থনীতি জিরো থেকে শুরু করতে হয় তবে তা ৯ কেন ১০ও হতে পারে।

[৩]তিনি উদাহরণ দেন, ৮৮ সালের বন্যার সময় বাংলাদেশের জিডিপি বৃদ্ধি অলমোস্ট জিরো হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু ১৯৯০ সালে এটি ৬ শতাংশ হয়ে যায়। একজন ব্যবসায়ী যখন লকডাউনের পর দোকান খোলে তখন জিরো থেকেই শুরু করে। পরে সে ১০০ ভাগই অর্জন করে। সাধারণ সময়ে এই জিডিপি অর্জন হয়না। তখন জিডিপি বাড়ে নিয়ম মেনে। অর্থাৎ ১ থেকে ২ শতাংশ বাড়ে।

[৪] তিনি হিসাবে করে দেখান বাংলাদেশের জিডিপি আগামীতে ৬ থেকে সাড়ে ৬ শতাংশ হতে পারে। তারমতে বাংলাদেশে লকডাউন শুরু হয়েছে বছরের শেষ কোয়ার্টারে। বাকি ৩ কোয়ার্টার আমাদের অর্থনীতি ভালছিল। আবার যখন লকডাউন শুরু হলো তখন গ্রামের অর্থনীতি পুরোটাই চালু ছিল। শহরে চালু ছিল ৫০ শতাংশ। দেশের বৃদ্ধি লকডাউনে কমলেও সব সময়েই তা ৫এর কাছেই ছিল। কাজেই তিনি মনে করেন আগামীতে প্রবৃদ্ধি সাধারণ হিসাবে সাড়ে ৬ হবে।

[৫] আইএমএফ, ইমার্জিং অর্থনীতির ২০২১ সালের প্রবৃদ্ধির হার প্রক্ষেপণ করেছে, ভারত, ৭ দশমিক ৪, পাকিস্তান, ২, চীন, ৯ দশমিক ২। ব্রাজিল, ২ দশমিক ৯, রাশিয়া ৩ দশমিক ৫, সৌদি আরব, ২ শতাংশ।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত