প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ইউরোপীয় ইউনিয়নে জিএসপি পেতে কি করতে হবে তা নিয়ে আলোচনা শুরু করেছে বাংলাদেশ

বিশ্বজিৎ দত্ত : [২] এই নিয়ে মঙ্গলবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয় একটি ভার্চুয়াল বৈঠক করেছে বিভিন্ন স্টেক হোল্ডারদের সঙ্গে। বিজিএমএই, বিএেমএই, প্লাস্টিক দ্রব্য রপ্তানিকারকদের প্রতিষ্ঠান, ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধি, ইউরোপীয় ইউনিয়নে নিযুক্ত বাংলাদেশের বাণিজ্য দূত এই বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।

[৩] বক্তারা বলেন, ২০২৪ সালে ইউরোপিয় ইউনিয়নে বাংলাদেশের জিএসপি সুবিধা শেষ হয়ে যাবে। কিন্তু ইউরোপীয় ইউনিয়ন সিদ্ধান্ত নিয়েছে আগামী জানুয়ারিতেই তারা জিএসপি সুবিধার পুর্নমূল্যায়ণ করবে। এই সময়ে বাংলাদেশের উচিৎ হবে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে একটি এফটিএ চুক্তি সাক্ষর করা। ভিয়েতনাম ইতিমধ্যেই ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে এই চুক্তি সাক্ষর করেছে।

[৪] জিএসপির আওতায় বাংলাদেশ ইউরোপীয় ইউনিয়নে শুল্কমুক্ত পোশাক রপ্তানি করে। বাংলাদেশের ৬২ শতাংশ পোশাক ইউরোপীয় ইউনিয়নে রপ্তানি হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত