প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] অগ্রিম আয়করের টাকা ফের চেয়ে এনবিআরকে সিমেন্ট ব্যবসায়ীদের চিঠি

মো. আখতারুজ্জামান: [২] করোনাভাইরাস মহামারিতে সিমেন্ট শিল্প বড় ধরনের সংকটে পড়ায় বিশেষ বিবেচনায় অতি দ্রæত টাকা ফেরত দেওয়া বা ছাড় করার অনুরোধ জানিয়েছে বাংলাদেশ সিমেন্ট ম্যানুফ্যাকচারার্স এসোসিয়েশন।

[৩] বৃহস্পতিবার এ অনুরোধ জানিয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যানের কাছে বিসিএমএ একটি চিঠি দিয়েছে।

[৪] বিসিএমএ সভাপতি আলমগীর কবির স্বাক্ষরিত এ চিঠিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে নির্মাণ শিল্প গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা রেখে আসছে।

[৫] দেশে সিমেন্টের ৭৮ মিলিয়ন টন উৎপাদনক্ষমতার বিপরীতে চাহিদা মাত্র ৩৩ মিলিয়ন টন। ফলে কঠিন প্রতিযোগিতায় কয়েক বছর ধরে সিমেন্টের দাম ক্রমাগত কমেছে। তীব্র প্রতিযোগিতার কারণে আদায়যোগ্য অর্থের পরিমাণ ব্যাপক হারে বেড়ে যাওয়ায় তার বিপরীতে চলতি মূলধনের প্রয়োজন হয়ে পড়েছে।

[৬] চিঠিতে আরও বলা হয়, বর্তমানে আমদানিতে অগ্রিম আয়কর হিসেবে ৩ শতাংশ উৎসে কর আদায় হচ্ছে। আমদানি পর্যায়ে কাঁচামালের মূল্যায়িত দাম সাধারণত ২৫ শতাংশ বেশি হয়ে থাকে। তাই কার্যকর অগ্রিম আয়কর হয় প্রায় ৪ শতাংশ। অন্যদিকে সকল পণ্য ও সেবার বিপরীতে ৫ শতাংশ এরও বেশি হারে উৎসে কর আদায় করা হচ্ছে।

[৭] সিমেন্ট বিক্রি ও রপ্তানির সময় উৎসে কর বিবেচনায় নিলে অগ্রিম আয়করের কার্যকর হার দাঁড়ায় প্রায় ৯ শতাংশ। অধিকন্তু, বর্তমান অর্থবছর থেকে আমদানি পর্যায়ে ৩ শতাংশ অগ্রিম আয়কর ন্যূনতম কর দায় হিসেবে বিবেচনা করা হবে।

[৮] এ অগ্রিম আয়কর সিমেন্ট কোম্পানিগুলোর জন্য বাধ্যতামূলক হয়ে যাওয়ায় এবং কোম্পানিগুলো কর পূর্ববর্তী স্বল্প মুনাফার কারণে এ বছর সকল সিমেন্ট কোম্পানিকেই লোকসান দিতে হচ্ছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত