প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

 ১৯ শতাংশের মতো কমেছে মাতৃ ও নবজাতকের স্বাস্থ্য সেবা 
[১] স্বাস্থ্য সেবা কমে গেলে ছয় মাসে বাংলাদেশে মৃত্যু হতে পারে ২৮ হাজার শিশুর

কূটনৈতিক প্রতিবেদক : [২] ইউনিসেফ এক বার্তায় এ তথ্য জানিয়ে বলেছে,  মহামারির চাপে বিভিন্ন দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা দুর্বল হতে থাকায় প্রতিদিন অতিরিক্ত ৬ হাজার শিশু মারা যেতে পারে।
[৩] স্বাস্থ্য সেবা ২০১৯ সালের মার্চের তুলনায় ২০২০ সালের মার্চে স২৫ শতাংশ কমেছে।
[৪] বাংলাদেশে ইউনিসেফের প্রতিনিধি তোমো হোযুমি বলেছেন, নারী ও শিশুদের জন্য জীবনরক্ষাকারী সেবা সহজলভ্য, নিরাপদ এবং সেবা গ্রহণের সুযোগ নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে নিবিড়ভাবে কাজ করছে ইউনিসেফ।
[৫]  বাংলাদেশে হাম ও রুবেলের টিকাদান ক্যাম্পেইন স্থগিত করা হয়েছে। ৯ মাস থেকে ৯ বছর বয়সী তিন কোটি ৪০ লাখ শিশুকে টিকা দেওয়ার লক্ষ্য নির্ধারিত হয়েছিল।
[৬] শিশুদের নিয়মিত টিকাদান চালু থাকলেও অনেক ক্ষেত্রে নির্ধারিত সময়ে টিকা দেওয়া হচ্ছে না এবং লকডাউনের কারণে স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রগুলোতে টিকা পরিবহনও চ্যালেঞ্জের হয়ে দাঁড়িয়েছে।
[৭] উচ্চতার অনুপাতে ওজন কম হওয়াসহ পাঁচ বছরের কম বয়সী এসব শিশুর মৃত্যুর ক্ষেত্রে একটি বড় ভূমিকা রাখবে।
[৮] স্বাস্থ্য ব্যবস্থা সুদৃঢ় করতে অন্য যে কোন সময়ের চেয়ে বেশি এই সময়ে স্বাস্থ্য খাতে বৃহত্তর বিনিয়োগ প্রয়োজন।
[৯] ল্যানসেট গ্লোবাল হেলথ জার্নালে প্রকাশিত জনস হপকিনস বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গবেষণার ভিত্তিতে শিশু মৃত্যুর আনুমানিক এই পরিসংখ্যান দেওয়া হয়েছে।
[১০] ইউনিসেফের নির্বাহী পরিচালক হেনরিয়েটা ফোর বলেন, ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মা ও শিশুদের এই ক্ষতির মুখে আমরা ফেলে দিতে পারি না।
[১১] মহামারির সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্য সেবা গ্রহণ কমে যাওয়ার ফলে বাংলাদেশসহ ১০টি দেশে সর্বাধিক সংখ্যক অতিরিক্ত শিশু মৃত্যু ঘটার ঝুঁকিতে রয়েছে বলেও উল্লেখ করেছে ইউনিসেফ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত