প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গণস্বাস্থ্যের কিটের কার্যকারিতা পরীক্ষার নামে দীর্ঘসূত্রতা মোটেও গ্রহণযোগ্য নয়

সওগাত আলী সাগর : গণস্বাস্থ্যের কিটটির কার্যকারিতা নিয়ে পরীক্ষার কতোদূর এগোলো কেউ জানেন কি? দু-একদিন আগে ড. জাফরুল্লাহ দীর্ঘসূত্রতার অভিযোগ তুলেছিলেন, তারপর আর কোনো কথা নেই। বাংলাদেশে যখন করোনাভাইরাসের পরীক্ষা দ্রত করা যাচ্ছে না, তখন এই কিটের কার্যকারিতা পরীক্ষার নামে দীর্ঘসূত্রতা মোটেও গ্রহণযোগ্য নয়।
এটি যদি কাজ না করে সেটিও পরীক্ষা করে জানিয়ে দেওয়া হোক। আরেকটা প্রশ্ন করি, করোনার চিকিৎসার নামে ওষুধ প্রশাসন যে নানা ওষুধের অনুমতি দিচ্ছেন, সেগুলো কীসের ভিত্তিতে দিচ্ছেন? সেগুলোর কি পরীক্ষা হয়েছে? হয়ে থাকলে এতো দ্রুত কীভাবে সম্ভব হলো? আর পরীক্ষা না হয়ে থাকলে সেগুলো কীভাবে অনুমতি পেলো? প্যাকেটের গায়ে ‘করোনার চিকিৎসায় কার্যকর’ লেখা যে ওষুধটি হাসপাতালে যাচ্ছে- সেটিকে কীভাবে, কীসের ভিত্তিতে অনুমতি দেওয়া হলো? বিশ্বের কোথাও এখন পর্যন্ত কোনো ওষুধকে করোনার কার্যকর ওষুধ হিসেবে ঘোষণা দেওয়া হয়নি অথচ বাংলাদেশের সেটি হচ্ছে। মিডিয়া এখন পর্যন্ত কোনোটা নিয়েই কোনো প্রশ্ন তুলেনি, বরং ফলাও করে প্রচার করে যাচ্ছে। এটা কীভাবে সম্ভব? কার্যকারিতা, পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া পরীক্ষা না করেই কিংবা স্বল্পতম সময়ে পরীক্ষা করে (এতোাট স্বল্প সময়ে কীভাবে এই পরীক্ষাগুলো করা সম্ভব)। যদি তথাকথিত করোনার ওষুধের অনুমতি দেওয়া যায় তাহলে করোনাভাইরাসের টেস্টের জন্য গণস্বাস্থ্যের কিটটির পরীক্ষা করা যাবে না কেন? ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত