প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] আতঙ্কের মধ্যে পুলিশ পাহাড়ায় আইসোলেসনে থাকা রোগীর শেষকৃত্য

বিপ্লব বিশ্বাস :  [২] পিরোজপুর সদর হাসপাতালের করোনা ইউনিটের আইসোলেশনে থাকা এক রুগির মৃত্যু নিয়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে। গতকাল দুপুরে সন্ধ্যা হালদার (৫৫) নামের ওই রোগি মারা যাওয়ার পর এ আতঙ্ক দেখা দেয়।

[৩] গত মঙ্গললবার পিরোজপুরে শ্বাসকষ্ট নিয়ে জেলা হাসপাতালে ভর্তি হন সন্ধ্যা হালদার (৫৫)। পৌরসভার মুক্তারকাঠী নামে এক নারীর মৃত্যু। গ্রামের সুশিল হালদারের স্ত্রী তিনি।

[৪] পিরোজপুর জেলা হাসপাতাল সূত্রে জানাযায়, গত মঙ্গলবার সন্ধ্যা হালদার শ্বাসকষ্ট নিয়ে জেলা হাসপাতালে ভর্তি হন। আগে থেকেই তার শাসকষ্ট এ্যজমার সমস্যা ছিল বলে তার পরিবারের দাবি। এরপরো করোনা উপসর্গ থাকায় কর্তব্যরত চিকিৎসক ঐ দিন তার নমুনা সংগ্রহ করে বরিশাল পাঠায় ও তাকে আইসোলেশন ওয়ার্ডে পাঠানো হয় । [৫]পরে আজ শনিবার সকালে আইসোলশনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যায় । এর আগে দূপূর থেকেই পিরোজপুর সদরের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে পরে করোনায় রোগি মারা যাওয়ার খবর। এতে কিছুটা হলেও আতঙ্ক ছড়িয়ে পরে পুরো শহর জুড়ে।

[৬] পিরোজপুরে জেলা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ নিজাম উদ্দিন জানান, শ্বাসকষ্ট নিয়ে সন্ধ্যা হালদার জেলা হাসপাতালের আইসোলেশন ভর্তি করা হয়। তার নমুনা সংগ্রহ করে বরিশাল পাঠানো হয়েছে । সে করোনায় আক্রান্ত কিনা রিপোর্ট এলে জানা যাবে ।

[৭] ডা. ননী গোপাল জানান, আগে থেকেই তার শাসকষ্টের সমস্যা ছিল। তারপরও নমুনার রেজাল্ট আশা অব্দি নিশ্চিত করে কিছু বলা যাবে না।

[৮] এ দিকে মৃত সন্ধ্যা হালদারকে পিরোজপুর সদর থানা পুলিশ প্রহরা দিয়ে পিরোজপুর পৌরশ্মশানে হিন্দুশাস্ত্রনুযায়ী তার শেশকৃত্যের সম্পন্ন করে মাটি চাপা দেয়া হয় ।

[৯] পিরোজপুর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি ) নুরুল ইসলাম বাদল জানান, মৃত ব্যক্তির লাশ সদর হাসপাতাল থেকে পুলিশ প্রহরায় পৌরশ্মশানে নেয়া হয় । পরে হিন্দুশাস্ত্রনুযায়ী তার শেষকৃত্যের সম্পন্ন করে মাটি চাপা দেয়া হয় । এসময় তার পরিবারের লোকজন উপস্থিত ছিলেন ।

[১০] inspector হাসনাইন জানান, সন্ধ্যার মধ্যেই তার শেষকৃত্য সম্পন্ম হয়। কিছু লোক এ নিয়ে ও গুজব ছড়ানোর চেষ্টা চালায়।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত