প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] হিজবুল্লাহকে নিষিদ্ধ করলো জার্মান সরকার

লিহান লিমা: [২]  লেবাননের সশস্ত্র গোষ্ঠি হিজবুল্লাহকে সন্ত্রাসী সংগঠন ঘোষণা করে জার্মানির মাটিতে সংগঠনটির সব ধরনের কার্যক্রম নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে পুলিশি অভিযান চালানোর ঘোষণা দেয়া হয়েছে। টুইটারে জার্মান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হস্ট্র সেহোফেরের মুখপাত্র স্টিভ অল্টার এই তথ্য জানান। ডয়েচে ভেলে

পুলিশি অভিযানে সবচেয়ে বেশি নজরে রয়েছে হিজবুল্লাহের আশ্রয় হিসেবে খ্যাত জার্মানির বার্লিন, ডর্টমুন্ড, ব্রিমেন ও মুনস্টারের মসজিদের চারটি এসোসিয়েশন।

জার্মান কর্তৃপক্ষ জানায়, দেশটিতে হিজবুল্লাহের ১ হাজার ৫০ জন সক্রিয় সদস্য রয়েছেন। গত সেপ্টেম্বরে ফেডারেল বিচারক এই সংস্থাটির সদস্যদের বিরুদ্ধে কর্তৃপক্ষকে অপরাধমূলক কার্যক্রমের তদন্ত করার এখতিয়ার দেন।

২০১৩ সালে ইউরোপের পররাস্ট্রমন্ত্রীরা হিজবুল্লাহের সশস্ত্র উইংকে নিষিদ্ধ করে তবে ইউরোপে সংস্থাটির রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড নিষিদ্ধ করা হয় নি। শুধুমাত্র সশস্ত্র নেতাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা কার্যকর ছিলো। গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে যুক্তরাজ্য হিজবুল্লাহকে সন্ত্রাসী সংগঠন ঘোষণা করে। এই গোষ্ঠির কার্যক্রম বন্ধ করার জন্য দীর্ঘদিন ধরে জার্মানির ওপর চাপ প্রয়োগ করে আসছে যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েল।

১৯৮০ সালে দক্ষিণ লেবাননে ইসরায়েলের আগ্রাসনের পর ১৯৮২ সালে শিয়াদের সংগঠন হিজবুল্লাহ প্রতিষ্ঠিত হয়। গেরিলা যুদ্ধের মাধ্যমে ২০০০ সালে ইসরায়েলকে লেবাননের মাটি ছাড়তে বাধ্য করে হিজবুল্লাহ। গঠনের পর থেকেই ইরান ও সিরিয়ার কাছ থেকে সহায়তা পেয়ে আসছে সংস্থাটি। জানুয়ারিতে লেবাননের প্রেসিডেন্ট হাসান দিয়াবকে সমর্থন দিয়েছে তারা। সিরিয়ার গৃহযুদ্ধে সমর্থন দিচ্ছে বাশার আল আসাদ সরকারকে।
যুক্তরাষ্ট্র, ইসরায়েল কানাডা ও আরব লীগ এটিকে সন্ত্রাসী সংগঠন বললেও অস্ট্রেলিয়াসহ অন্যান্য ইউরোপিয় দেশ বলছে, হিজবুল্লাহ বৈধ রাজনৈতিক কার্যক্রমই চালাচ্ছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত