প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১]ইউরোপিয়ান দেশগুলো লকডাউন প্রত্যাহার করতে শুরু করেছে

ইমরুল শাহেদ : [২] ইউরোপের দেশগুলো করোনা তাণ্ডবের মধ্যেই সামাজিক জীবন, যানবাহন ও সীমান্ত এলাকা থেকে বিধিনিষেধ প্রত্যাহারের পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে। নভেল করোনাভাইরাস বিস্তার প্রতিরোধে এগুলো গত মধ্য-মার্চ থেকে বলবৎ করা হয়েছিল।

[৩] করোনাভাইরাসের কারণে শুধু ইউরোপেই মারা গেছে এক লাখ ৫০ হাজার মানুষ। তাদের বেশির ভাগই মারা গেছে ইতালি, ফ্রান্স, স্পেন ও ব্রিটেনে। যাহোক, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন গত সোমবার কর্মস্থলে ফিরে এসেছেন। করোনায় ভুগে আসা বরিস বলেছেন, বিধিনিষেধ তুলে নেওয়াটা অনেক আগে হয়ে যাচ্ছে।

[৪] বরিসের কাছের মানুষ ডোমিনিক র‌্যাব বলেছেন, ‘আমরা এখনও একটা নাজুক ও বিপজ্জনক পরিস্থিতিতে আছি। আমাদেরকে নিশ্চিত করতে হবে আমাদের নেওয়া পদক্ষেপগুলো সঠিক।’

[৫] ব্রিটেন ছাড়াও আরোপিত বিধিনিষেধ প্রত্যাহারের বিষয়ে এগিয়ে যাচ্ছে স্পেন, ইতালি, ফ্রান্স, অস্ট্রিয়া এবং ডেনমার্ক।

[৬] স্পেন মঙ্গলবার চার ধাপে লকডাউন প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে। এতে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে সেলুনসহ বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, রেস্তোরাঁ এবং খেলাধূলাকে। ২ মে থেকেই তারা কার্যক্রম শুরু করতে পারবে। পরের ধাপ শুরু হবে ১১ মে থেকে। ইতোমধ্যে শিশুদের জন্য পার্ক খুলে দেওয়া হয়েছে।

[৭] ইতালিতে লকডাউন থাকবে ৩ মে পর্যন্ত। সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং নাগরিকদের ১৩ এপ্রিল থেকেই ঘরে থাকার জন্য বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছিল।

[৮] ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ ১১ মে থেকেই বিধিনিষেধ প্রত্যাহার করে নেওয়ার কথা ভাবছে। প্রাথমিকভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে। কিন্তু কিভাবে সেটা করা হবে সেটা এখনও ভাবা হয়নি। এর মধ্যেই কিছু কিছু এলাকায় লকডাউন বলবৎ থাকবে।

[৯] অস্ট্রিয়া এবং ডেনমার্কে শপিংমলসহ বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খুলে যাবে যথাক্রমে ১ ও ১০ মে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত