প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] দেশে প্রতি ১০ লাখে মাত্র ১৮০ জনের হচ্ছে করোনা শনাক্তকরণের পরীক্ষা

আরিফ হোসেন: [২] দেশে প্রতি ১০ লাখ মানুষের মধ্যে করোনা শনাক্তকরণের পরীক্ষা হচ্ছে মাত্র ১৮০ জনের। যা খুবই নগন্য। অনেকে শনাক্তের বাইরে থাকায় ঠেকানো যাচ্ছে না করোনা সংক্রমণ। নিউজ ২৪

[৩] বিশেষজ্ঞরা বলেন, করোনা ভয়াবহ বিপর্যয় থেকে রক্ষা পেতে দ্রুত বাড়াতে হবে পরীক্ষা। দক্ষিণ এশিয়ায় করোনায় সুস্থ হওয়ার হার সবচেয়ে কম বাংলাদেশে। এপ্রিলের শুরু থেকে দেশে করোনা শনাক্তের সংখ্যা বাড়ছে। কিন্তু সংক্রমণ বাড়তে থাকলেও একই হারে পরীক্ষা বাড়েনি। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সবশেষ মঙ্গলবারের তথ্য অনুযাযী, দেশে প্রায় ৩০ হাজার নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

[৪] দেশে এখন ১৯টি ল্যাবে পরীক্ষা হচ্ছে। প্রতিদিন সাড়ে ৫ হাজার পরীক্ষা করার সক্ষমতা থাকলেও সেগুলোর সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে পারছে না সংশ্লিষ্টরা।

[৫] করোনায় বেশি শনাক্ত হয়েছে বিশ্বের এমন দেশগুলোতে দেখা যাচ্ছে পরীক্ষার হার অনেক বেশি। প্রতি ১০ লাখে গড়ে ১৫ হাজারের বেশি পরীক্ষা করা হচ্ছে এসব দেশে। কিন্তু বাংলাদেশে পরীক্ষা করার হার হতাশাজনক। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশে পরীক্ষার হার সবচেয়ে কম। মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত ওয়ার্ল্ড ও মিটারসের পরিসংখ্যানে দেখা যায়, দেশে প্রতি ১০ লাখ মানুষের মধ্যে গড়ে ১২৬ জনের করোনা শনাক্তকরণের পরীক্ষা হচ্ছে। মোট জনসংখ্যার অনুপাতে যা একেবারেই কম।

[৬] দক্ষিণ এশিয়ায় করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোতে দেখা যাচ্ছে, সুস্থ হওয়ার হার বাংলাদেশে সবচেয়ে কম। যেখানে অন্যদেশগুলো দুই অঙ্কে থাকলেও বাংলাদেশ এক অঙ্কে আটকে আছে।

[৭] বিশেজ্ঞরা বলছেন, করোনায় আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসায় আরও মনোযোগি হতে হবে। আক্রান্ত রোগীদের যেসব স্বাস্থ্যকর্মী সেবা দিবে তাদের পর্যন্ত সুরক্ষা দিতে না পারলে সামনে পরিস্থিতি আরও খারাপ হওয়ার আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞারা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত