প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

এই বিপদকালীন সময়ে যা করণীয়

আহসান হাবিব : আল কুরআনের ভাষ্যমতে জীবন মানেই পরীক্ষা। তবে এ পরীক্ষা এক ধরনের সুযোগও বটে। এই পরীক্ষা হলো এমন একটি আলো যা দিয়ে আমরা নিজেদের মন ও অন্তরকে দেখার সুযোগ পাই। এমন একটি আয়না যা দিয়ে আমরা নিজেরাই নিজদেরকে পরখ করতে পারি। জীবনে যখন পরীক্ষার সময়গুলো আসে, তখুনি আমরা সবচেয়ে উত্তম কাজগুলো করতে পারি। উত্তম চিন্তাগুলো ধারণ করতে পারি। উত্তম ভাবনাগুলোকে ছড়িয়ে দিতে পারি।

আমাদের জীবনে যে দুর্যোগ, দু:সময় ও বিপর্যয় আসে, তা মুলত আল্লাহকে খুশী করার কিছু উপায় ও সুযোগ আমাদের সামনে উম্মুক্ত করে দেয়। একজন প্রকৃত মুমিন যখন পরীক্ষায় অবতীর্ণ হয়, তখন সে পরীক্ষা নিয়ে পেরেশান থাকে না। বরং এই ভেবে পেরেশান হয়ে যায় যে, কীভাবে এবং কতটা উত্তমভাবে সে এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে পারে।

এই করোনা সংকটটি আমাদেরকে ব্যক্তিগতভাবে, পারিবারিকভাবে এবং সামাজিকভাবে নিজেদেরকে আরেকদফা মুল্যায়ণ করার সুযোগ করে দিয়েছে। আমরা এ সংকটটি কীভাবে দেখছি, মুল্যায়ন করছি আর কীভাবেই বা এর সাথে আত্মস্থ হচ্ছি, প্রকৃত বিষয়টা সেখানেই লুকায়িত।

এই সংকট কি আমাদেরকে আল্লাহর পথে নিচ্ছে, আল্লাহর সাথে সম্পর্কিত করছে নাকি আমরা এই সংকট নিয়ে অনেক বেশি পেরেশানি করতে করতে এমন কিছু কাজ করছি, যা আল্লাহর প্রদত্ত বিধান ও নির্দেশনা থেকে আমাদেরকে আরো দূরে সরিয়ে নিয়ে যাচ্ছে?

তবে এটাও ঠিক, করোনা হোক অথবা না হোক, মৃত্যু আমাদের হবেই। মত্যুর চেয়ে নিশ্চিত সত্য আর হয় না।
নবিজির (সা.) নাতি হযরত হাসান (রা.) বলেন, “মৃত্যুর মত একটি জলজ্যান্ত সত্যকে যেভাবে এড়িয়ে যাওয়া হয়, অন্য কোনো সত্যের ক্ষেত্রে এমনটা হয় না। অথচ প্রতিটা দরজায় মৃত্যু কড়া নাড়ে। যুবক, শিশু কিংবা বৃদ্ধ- যে কাউকেই মৃত্যু ছিনিয়ে নিয়ে যেতে পারে।”

আসুন ঘরে বন্দি এ সময়টিকে ভালো কাজে বিনিয়োগ করি। নিজেদেরকে মুল্যায়ণ করে উত্তম মানুষ হওয়ার চেষ্টা করি এবং নিজেদেরকে সংশোধন করি। সম্পাদনা : রাশিদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত