প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] শহীদ আফ্রিদিকে মিথ্যাবাদী ও বিশ্বাসঘাতক বলে গৌতম গম্ভীরের আক্রমণ

এল আর বাদল : [২] শাহিদ আফ্রিদির সঙ্গে নিজের ‘শত্রুতা’ বজায় রাখলেন গৌতম গম্ভীর। পাক তারকাকে মিথ্যাবাদী, বিশ্বাসঘাতক ও সুবিধাবাদী বলে আক্রমণ শানালেন দিল্লির সুপারস্টার ক্রিকেটার।

[৩] শনিবার গম্ভীর একটি টুইট করেন। যেখানে তিনি সরাসরি আক্রমণ করে আফ্রিদির উদ্দেশে লিখেছেন, যে নিজের বয়স মনে রাখতে পারে না, সে কী করে আমার রেকর্ডস মনে করবে? শাহিদ আফ্রিদি তোমাকে মনে করিয়ে দিই, ২০০৭ টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনাল। ইন্ডিয়া বনাম পাকিস্তান ম্যাচে গম্ভীর ৫৪ বলে ৭৫ করে। আফ্রিদি ১ বলে ০! সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ হলো আমরা কাপ জিতেছিলাম। হ্যাঁ, মিথ্যাবাদী, বিশ্বাসঘাতক, সুবিধাবাদীদের নিয়ে আমার সমস্যা আছে। -এনডিটিভি

[৪] গম্ভীরের এই গনগনে প্রতিক্রিয়ার নেপথ্যে আফ্রিদির একটি লেখা। যেখানে তিনি লিখেছিলেন, গম্ভীরের আচরণগত সমস্যা রয়েছে। যে ক্রিকেটের কোনো চরিত্রই নয়, যার কোনো ব্যক্তিত্ব কিংবা রেকর্ডসই নেই, খালি আছে অ্যাটিটিউড। এমন ভাবভঙ্গি দেখায় যেন ও ডন ব্র্যাডম্যান, জেমস বন্ডকেও পেরিয়ে গিয়েছে।

[৫] তারপরেই ক্ষিপ্ত গম্ভীর তুলে এনেছেন ২০০৭ সালের টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রসঙ্গ। সেখানে ভারত ফাইনালে পাকিস্তান বধ করে ট্রফি জিতেছিল এবং আফ্রিদি ব্যর্থ হওয়ার সময় ব্যাট হাতে তিনি ঝলসে উঠেছিলেন, তা মনে করিয়ে দিয়েছেন।

[৬] ইরফান পাঠান ম্যাচের সেরা হলেও গম্ভীরের ব্যাটে ভর করে ভারত স্কোরবোর্ডে বড় স্কোর খাড়া করে। এরপরে মিসবা উল হক লড়াই চালালেও যোগিন্দর শর্মার শেষ ওভারে খতম হয়ে যায় পাকিস্তান। পাশাপাশি আফ্রিদির বয়স নিয়েও কটাক্ষ করেছেন গম্ভীর।

[৭] আফ্রিদি নিজের বইয়েই গম্ভীরকে আক্রমণ করেছিলেন। গত বছর আফ্রিদি নিজের বই প্রকাশ করার সময়েও তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছিলেন গম্ভীর। সরাসরি তোপ দেগে জানিয়েছিলেন, মনোবিদের কাছে যাওয়া উচিত আফ্রিদির। আমি নিশ্চিত নিজের বই ভালো ভাবেই বিক্রি করতে পারবে আফ্রিদি। আসলে ও মানসিকভাবে ১৬ বছরের। -ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

সর্বাধিক পঠিত