প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] চট্টগ্রাম বন্দর সচল রাখতে করানীগঞ্জের পানগাঁওয়ে কন্টেইনার টার্মিণাল বড় ভূমিকা রাখছে

কিশোর সরকার : [২] করোনভাইরাসে আক্রান্ত চট্টগ্রাম বন্দরের এবাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারী। জরুরি মালামাল ছাড়া কেউই কন্টেইনার ডেলিভারি নিচ্ছেন না।

[৩] তাই চট্টগ্রাম বন্দরে জট কমাতে এখন পানগাও কন্টেইনার পাঠিয়ে দেয়া হচ্ছে আভ্যন্তরীণ কন্টেইনারবাহী জাহাজে। ইতিমধ্যে তিনশতাধীকের বেশী কন্টেইনার চট্টগ্রাম বন্দর থেকে নৌপথে পানগাঁওয়ে এনে রাখা হয়েছে। আরো কন্টেইনার পানগাঁওয়ে পাঠানো হচ্ছে বলে চট্টগ্রাম বন্দর সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

[৪] দেশের আমদানি-রপ্তানির ৯২ শতাংশ চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে হয়ে থাকে। এর মধ্যে ৭০ শতাংশ কনটেইনার বোঝাই পণ্যই থাকে ঢাকাগামী। যার ৫০ শতাংশ সড়ক এবং ১১ শতাংশ রেলপথে পরিবহন হয়। এ দুই পথে পণ্য পরিবহনে বেশি সময় লাগার কারণে চট্টগ্রাম বন্দরে প্রায়ই দেখা দেয় কনটেইনার জট।

[৫] তাই বিআইডব্লিউটিএ ও চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের যৌথ উদ্যোগে নির্মিত হয় অভ্যন্তরীণ কন্টেইনার টার্মিনালটি- যা ২০১৩ সালের ৭ নভেম্বর উদ্বোধন করা হয়। এতোদিন নানা কারণে এর লক্ষমাত্র পুরোন হয়নি। কিন্তু করোনার এ আপদের সময় বড় ভূমিকা রাখলো বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

[৬] নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, চট্টগ্রামে এ ধরনের কন্টেইনার জট তৈরি হতো না যদি গার্মেন্টসের ২৯ হাজার কন্টেইনার ডেলিভারি নিতো। বিজেএমইকে ২০ থেকে ২৬ মার্চের মধ্যে কন্টেইনার খালাস নিলে পোর্টর ডিলে চার্জ মাফ করার কথা বলা হয়েছি। কিন্তু তারপরেও নেয়নি। তবে এক্ষেত্রে পানগাঁও এখন একটি বড় ভূমিকার রাখছে।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত