প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] হোসেনপুরে মধ্যবিত্ত পরিবারে নিভৃতে কান্না: ক্ষুধা আর লজ্জা, পারছে না ত্রাণ চাইতে

আশরাফ আহমেদ, হোসেনপুর প্রতিনিধি: [২] বিশ্বের অন্যান্য দেশের ন্যায় বাংলাদেশে করোনার ভয়াবহ মরণ ছোবল থেকে বেঁচে থাকার জন্য কিশোরগঞ্জের হোসেনপুরে কর্মহীন হয়ে অসহায় অবস্থায় গৃহে থাকায় নিত্য আয়ের মানুষগুলো চরম বিপাকে পড়েছেন।

[৩] এদের জমানো যে পুঁজি ছিল তাও এখন শেষ। এসব লোকজন না পারছে ঘর থেকে বের হয়ে কর্মে ফিরতে, না পারছে অন্যদের মতো ত্রাণের জন্য এদিক ওদিক ছুটতে। আয়-রোজগার বন্ধ থাকায় পরিবার-পরিজন নিয়ে অনেক কষ্টে কাটছে এদের দিন। ঘরবন্দি পরিস্থিতি যত দীর্ঘ হচ্ছে এদের অবস্থা ততোই খারাপ হচ্ছে। হতদরিদ্রদের নিয়ে ভাবলেও কর্মহীন এসব মানুষগুলোকে নিয়ে কেউ ভাবছেন না বলে জানান স্থানীয় ভুক্তভোগীরা।

[৪] এসব মধ্যে বিত্ত পরিবার গুলোতো অসহায় হয়ে পড়েছেন। করোনা ভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে, আয়ের পথ বন্ধ হওয়ায় অনেক কষ্টে দুর্বিসহ জীবন-যাপন করছেন বলে জানান তারা। করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে ও জনসমাগম এড়াতে গত ২৬ মার্চ থেকে সরকারী ছুটি চলছে।

[৫] বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার আড়াইবাড়িয়াতে ঘুরে দেখা যায়, অনেকেই প্রতিবেদককে বলেন, আমরা মধ্যবিত্ত মানুষদের কাজ না থাকায় আয়-রোজগার সব বন্ধ। হাতে যা ছিল তা শেষ, ঘরে খাবার নাই এখন কিভাবে সংসার চালাবে তা নিয়ে খু্বই দুশ্চিন্তায় সময় পার করছেন তারা। সরকার থেকে বিভিন্ন যায়গায় অনেক খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হলেও আমরা তার আওতামুক্ত।

[৬] এ ব্যাপারে উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সোহেল জানান, বিশেষ কর্মহীন পেশাজীবী শ্রেণীদের জন্যও সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড মেম্বার ও চেয়ারম্যান দ্বারা অনুদান পাওয়ার যোগ্য ব্যক্তিদের নামের তালিকা করা হচ্ছে। তবে সরকারের যথেষ্ট পরিমাণ খাদ্য বরাদ্দ থাকায় কেউ খাদ্য প্রাপ্তি থেকে বাদ যাবে না বলেও জানান তিনি। সম্পাদনা: ইস্রাফিল হাওলাদার

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত