প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] গত ১৮ বছরে তেলের দর কমে সর্বনিম্নে ব্যারেল প্রতি দাঁড়িয়েছে ১৯.৫৯ ডলার

রাশিদ রিয়াজ : [২] মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সৌদি আরববে বাধ্য করলেন তেলের উৎপাদন দিনে সাড়ে ১২ মিলিয়ন ব্যারেল কমাতে। ওপেক এ সিদ্ধান্ত নেয়ার পরও আন্তর্জাতিক বাজারে ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট যা টেক্সাস লাইট সুইট হিসেবে পরিচিত এমন তেলের দর প্রতি ব্যারেল মাত্র এক সপ্তাহের ব্যবধানে বুধবার ২৮.১৮ থেকে নেমে দাঁড়িয়েছে ১৯.৫৯ ডলারে। ফক্সনিউজ

[৩] এই অপরিশোধিত তেলের মূল্য গত ৯ এপ্রিল থেকে ধারাবাহিকভাবে কমে আসছে। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তার দেশে বিদেশি তেল আমদানির ক্ষেত্রে বাড়তি শুল্ক আরোপের হুঁশিয়ারি দেন। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। তেলের দর অন্তত ব্যারেল প্রতি ২০ ডলারে ঠেকিয়ে রাখা যায়নি। স্পুটনিক

[৪] যখন ব্রেন্ট ক্রুড লন্ডনে ব্যারেল প্রতি ২৮.৭৫, রাশিয়ার উরাল ব্যারেল প্রতি ২৮.৫৫ ডলারে বিক্রি হচ্ছিল তখন ওপেক তেল বিক্রি করে ব্যারেল প্রতি ২১.১৮ ডলারের বেশি পাচ্ছিল না। এমন এক পরিস্থিতিতে টেক্সাসে তেলের দর আরো সাড়ে ৪ শতাংশ হ্রাস পায়।

[৫] তেলের দর হ্রাসের সঙ্গে সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সারাবিশ্বে অর্থনৈতিক মন্দা, স্বাস্থ্য ঝুঁকি, বাণিজ্যে আরো বেশি পৃথকীকরণ ব্যবস্থা আর সর্বোপরি অচলাবস্থা। ইন্টারন্যাশনাল এনার্জি এজেন্সি বলছে বিশ্বে তেলের চাহিদা এবছর হ্রাস পাচ্ছে রেকর্ড ৯.৩ মিলিয়ন ব্যারেল।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত