প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

করোনা সংক্রমণ মোকাবেলায় হাসপাতাল চিকিৎসক বা স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য বরাদ্দটা কোথায়?

সওগাত আলী সাগর : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন ৭২ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেন- তখনো প্রশ্নটা করেছিলাম, এখনো করি। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবেলায় চিকিৎসাখাতের জন্য, হাসপাতালের জন্য, চিকিৎসকদের জন্য, স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য বরাদ্দটা কোথায়? আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে গেলে সেই পরিস্থিতি মোকাবেলার পরিকল্পনাটা কী? করোনায় চিকিৎসাসেবা দিতে গিয়ে কোনো চিকিৎসক মারা গেলে তার জন্য বীমার টাকার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। কিন্তু চিকিৎসককে বাঁচিয়ে রাখার, নিরাপদে কাজ করে যাওয়ার পরিবেশ তৈরির জন্য বরাদ্দ কোথায়? মৃত্যুর পরে তার পরিবারকে টাকা দেয়ার চেয়েও তাকে বাঁচিয়ে রাখার উদ্যোগটা জরুরি। কেননা, চিকিৎসক বেঁচে থাকলে হাজার জন মানু বেঁচে যাবেন। বছরের পর বছর ধরে দুর্নীতিতে নিমজ্জিত থাকা স্বাস্থ্যখাতের দিকে মনোযোগ না দিয়ে ‘সবকিছুই আমাদের নিয়ন্ত্রণে আছে’, ‘আগাম প্রস্তুতি’- এইসব বক্তৃতায় যে করোনা ভাইরাসের বিস্তৃতি রোধ করা যায় না- সেটা যদি এখনো কেউ বুঝতে না পারেন তাদের ধিক্কার দেয়া ছাড়া আমাদের কিইবা করার আছে। যে চিকিৎসকরা হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন, যে নার্স, টেকনোলোজিস্ট, বয়, আয়া -তারাও আপনার আমার মতো মানুষ। তাদের পরিবার পরিজন আছে, তাদেরও জীবনের মায়া আছে। ‘যে কোনো পরিস্থিতিতে তারা রোগীর সেবা দেবেন, চিকিৎসা সেবা দেবেন’- এই অঙ্গীকার করেই একজন চিকিৎসক সনদ নেন। চিকিৎসকরা যাতে ‘যে কোনো পরিবেশে চিকিৎসা সেবা দিতে পারে’ তার জন্য প্রয়োজনীয় পরিবেশ নিশ্চিত করার, প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা নিশ্চিত করার অঙ্গীকারও কিন্তু রাষ্ট্র করেছে। রাষ্ট্রকেও তার সেই অঙ্গীকারের কথা মনে করিয়ে দিতে চাই।
যে চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মী এখন হাসপাতালে দায়িত্ব পালন করছেন- তাদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সামগ্রী আছে কিনা, ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী আছে কিনা, দিনের তিন বেলা না হোক অন্তত এক বেলা ভালো করে তারা খেতে পারছেন কিনা- সেই খবর কি কেউ নিয়েছেন? পুরো লেখাটি পড়–ন লেখকের ফেসবুকে

সর্বাধিক পঠিত