প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শুধু হতদরিদ্র বা গরিব মানুষ কেন সাহায্য পাবে?

মেজর (অব.) আখতারুজ্জামান : রাষ্ট্র সবাইকে সমভাবে সাহায্য করতে হবে। করোনাভাইরাসের আক্রমণ যেকোনো মানুষের উপর হতে পারে। প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে আমি পর্যন্ত সব মানুষের হতে পারে এবং হচ্ছেও। করোনাভাইরাস যেমন গরিব-ধনী চিনে না তেমনি রাজা, বাদশাহ, প্রেসিডেন্ড বা মন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রী চিনে না। চিনে না কে সরকারি বা কে বেসরকারি, কে ধনী বা কে গরিব। কে চৌকিদার বা কে সিপাহশালার বা কে কেরানি বা কে দৌর্দ- প্রতাপের সচিব বা কে পুলিশ বা কে চোর তার কোনো মাপ নেই করোনা ভাইরাসের আক্রমণের আশঙ্কা থেকে। তাই করোনাভাইরাসের আক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে সবাইকে যেমন ঘরে বন্দি বা একঘরে করে থাকতে হবে আবার সবাইকেই একে অপরের সাহায্যেও এগিয়ে আসতে হবে।
এখানে শুধু হতদরিদ্র বা গরিব মানুষ কেন সাহায্য পাবে? সবাই সাহায্য পাওয়ার হকদার। গরিবকেও করোনাভাইরাসের আক্রমণ থেকে অন্যকে রক্ষা করার জন্য সাহায্য করতে এগিয়ে আসতে হবে। এমনকি প্রধানমন্ত্রীকেও সাহায্য করতে এগিয়ে যেতে হবে। তাই আমি মনে করি চিরাচরিত ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম না চালিয়ে রাষ্ট্র্র থেকে শতকরা একশ শতাংশ মানুষকে সাহায্য করতে হবে। স্বয়ং প্রধানমন্ত্রীকেও সাহায্যের নেটওয়ার্ক তথা জালে নিয়ে আসতে হবে। রাষ্ট্র একশ শতাংশ নাগরিককে সাহায্য করবে। যদি কারও সাহায্যের প্রয়োজন না পড়ে তাহলে সে অন্যকে তার সাহায্য দিয়ে দেবে। করোনার আক্রমণের আশঙ্কা থেকে রক্ষা পেতে সাহায্য পাওয়ার সমতা আনতে হবে। রাষ্ট্র সবার এবং করোনার আশঙ্কাও সবার। তাই রাষ্ট্র সব অবস্থানের ভেদাভেদ তুলে দিয়ে সবাইকে সাহায্য দিতে ব্যবস্থা নেবে এটাই জনগণের দাবি। সবাই ভালো থাকুন, করোনামুক্ত থাকুন। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত