প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ঝালকাঠিতে জ্বরে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক বৃদ্ধের মৃত্যু

ঝালকাঠি প্রতিনিথি : [২] মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে তিনি নিজ বাড়িতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। আব্দুল হালিম হাওলাদার নামের ওই ব্যক্তির বয়স ছিলো ৬৫ বছর। তিনি ওই উপজেলার মঠবাড়ি ইউনিয়নের সাউথপুর গ্রামের প্রয়াত সইজউদ্দিন হাওলাদারের ছেলে।

[৩] ওই বাড়ি ঘুরে এসে রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাক্তার আবুল খায়ের রাসেল বলেন, আব্দুল হালিম হাওলাদার কয়েকদিন আগে জ্বরে আক্রান্ত হন এবং স্থানীয় সোহাগ ক্লিনিকে চিকিৎসা নেন।

[৪] ক্লিনিকের ডিপ্লোমা চিকিৎসক নাসির উদ্দিন ওই ব্যক্তিকে ইনজেকশন দেয়ার ব্যবস্থাপত্র দেন। তবে একজন ডিপ্লোমা চিকিৎসকের পক্ষে ইনজেকশর পুশ করার ব্যবস্থাপত্র দেয়ার এখতিয়ার নেই বলে জানান উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাক্তার আবুল খায়ের রাসেল।

[৫] ডাক্তার আবুল খায়ের রাসেল আরও বলেন, ওই ব্যক্তি করোনায় মারা গেছেন কিনা তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না, তবে প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে করোনা নয়, অন্য কোন কারণেই ওই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে।

[৬] এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. তরিকুল ইসলাম তারেক সাংবাদিকদের জানান, ক্লিনিকের চিকিৎসক হালিমকে মোট ১৪টি ইনজেকশন নিতে বলেন। তিনটি ইনজেকশন দেয়া হয়েছিল। আর ইনজেকশন নেয়ার পর থেকেই আরও বেশি অসুস্থ হয়ে পড়েন আব্দুল হালিম।

[৭] এ ব্যাপারে ক্লিনিকের ডিপ্লোমা চিকিৎসক নাসির উদ্দিন বলেন, হালিমের শরীরে করোনার লক্ষণ ছিল না। তবে তার রক্ত পরীক্ষা করলে টাইফয়েড ধরা পড়ে। আর সে কারণে আমি সেফট্রিয়াক্সোন (Ceftriaxone) ইনজেকশনের ব্যবস্থাপত্র দেই।

[৮] একজন ডিপ্লোমা চিকিৎসকের পক্ষে এ ব্যবস্থাপত্র দেয়ার বৈধতা আছে কিনা জানতে চাইলে ডিপ্লোমা চিকিৎসক নাসির উদ্দিন বলেন, আমার ভুল হয়ে গেছে। ভবিষ্যতে এমন ভুল আর হবে না বলে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত