প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

হিংসা, ঘৃণা আর মাত্রাতিরিক্ত লোভই মানুষ জাতির বিলুপ্তির কারণ হতে পারে

গৌতম চক্রবর্তী : পাহাড়ে একটা চালু কথা আছে, ব্রয়লার। আমাদের বাচ্চাদের দেখে তারা হাসে, বলে তোমরা তো তাদের স্বাবলম্বী হতেই দাও না। তাদের সবসময় আগলে রাখো। তাদের লড়তে দাও, নিজের মতো বড় হতে দাও। জীবনের শিক্ষা নিতে দাও। কথাটা মিথ্যা নয়। আমরা কিন্তু এভাবে বড় হইনি। রীতিমতো লড়ে প্রচুর অপ্রাপ্তি নিয়েই বড় হয়েছি। তাতে কিন্তু আমাদের মানুষ হওয়া আটকায়নি। তারপরও আমরা যুদ্ধ মহামারী বিপর্যয় এ সব কিছুই দেখিনি সেই অর্থে। আমাদের বাপ-দাদারা ৪৭ দেখেছেন, ৭১ও দেখেছেন। প্লেগ, কলেরা ফ্লু ইত্যাদি নানা মহামারী দেখেছেন। মন্বন্তর দেখেছেন। দেখেছেন লাখো মৃত্যু, অনাহারে যুদ্ধে। গৃহহারা ভিটেহারা হয়েছেন। তুমুল লড়াই করেছেন, ফের মাথা তুলে দাঁড়িয়েছেন। শিক্ষা নিয়েছেন সে সব থেকে। আমরা কিন্তু সে সব কিছুই ফেস করিনি। জীবন কোনোকালেই গোলাপের পাপড়ি বিছানো রাস্তা নয়, ছিলোও না কখনো। ছিলো চূড়ান্ত অনিশ্চিত। সেটা ভুলে গিয়েছিলাম আমরা। প্রকৃতি সেটা আবার মনে করিয়ে দিলো। মনে করিয়ে দিলো আমাদের সীমাবদ্ধতা। মনে করিয়ে দিলো নিজেদের মধ্যে লড়াই করে শক্তি ক্ষয় করে টিকতে পারবো না আমরা। বাঁচতে হলে প্রকৃতির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে একে অন্যের হাত ধরেই বাঁচতে হবে। অন্যথায় হিংসা ঘেন্না আর মাত্রাতিরিক্ত লোভই আমাদের প্রজাতির বিলুপ্তির কারণ হতে পারে। এই শিক্ষাটা হয়তো জরুরি ছিলো আমাদের জন্য। এই সময়টা কেটে যাবে, তবে শিক্ষাটা রয়ে যাবে। সেটাও কম প্রাপ্তি নয়। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত