প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

করোনা বিপদকালে মেয়রসহ দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা যখন দলবল নিয়ে ছবি তুলে বেড়ান, তাদের জন্যও শাস্তি প্রযোজ্য

আনু মুহাম্মদ : দুনিয়াজুড়ে ‘লকডাউন’, ‘কোয়ারেন্টাইন’, ‘আইসোলেশন’ ইত্যাদি করা হচ্ছে জনগণের জীবন নিরাপদ করার জন্য, তাদের হয়রানি বা বিপদাপন্ন করার জন্য নয়। যাতে মানুষ না জেনে না বুঝে বিপদে না পড়ে সেজন্য ব্যাপক প্রচার চালানো হচ্ছে সব দেশে। এ রকম অবস্থায় সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করার পর সরকারের সিভিল সার্জন যখন বিয়ের অনুষ্ঠান করে কয়েকশ মানুষ দাওয়াত দেন সেটা তার অপরাধ। কেননা তিনি উচ্চ দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তি, সব জেনেবুঝে শুধু তার বাহাদুরি করার কারণে বহু মানুষ বিপদে পড়তে পারে। এজন্য এই লোকের শুধু কান ধরে উঠাবসা নয় আরও বড় শাস্তি হওয়ার কথা। করোনা বিপদকালে মেয়রসহ দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা যখন দলবল নিয়ে ছবি তুলে বেড়ান তাদের জন্যও এই শাস্তি প্রযোজ্য।
কিন্তু জীবন বাঁচানোর জন্য কেউ যখন রাস্তায় বের হন, গায়ে খেটে কিছু কাজ করে ঘরে খাবার নিয়ে যাওয়া যার একমাত্র উপায় এটা তার অপরাধ নয়, এটা তার বিপদ। তাকে সাহায্য করাই পুলিশ, কর্মকর্তাদের কাজ। যদি অসুস্থ মনে হয় তাকে টেস্ট করা, যদি তাকে ঘরে ফেরত পাঠাতে হয় তাহলে খাবারদাবার কিনে দিয়ে ঘরে (যদি থাকে) ফেরত পাঠানোই সরকারের লোকজনদের দায়িত্ব। এ রকম বিপদাপন্ন ব্যক্তিদের অপমান করা, কান ধরে উঠবস করানো, গায়ে হাত তোলা গুরুতর অপরাধ। এ রকম অপরাধে যুক্ত পুলিশ ও সরকারি কর্মকর্তাদেরই বরং বিচার হওয়া উচিত। ফেসবুক থেকে

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত