প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ফাঁকা কারওয়ান বাজারে ক্রেতার অভাবে অবসর সময় পার করছেন খুচরা ও পাইকারী ব্যবসায়ীরা, লেবু ডজন ১৫০, করলা ও উস্তা ৩০-৪০ টাকা কেজি

লাইজুল ইসলাম : [২] সকালে কারওয়ান বাজারের পাইকারি ও খুচরা দুদিকেই ঘুরে দেখা গেছে ক্রেতা শুন্য। এই সুযোগে যারা কেনাকাটা করেছেন তাদের মুখে ছিলো তৃপ্তীর হাসি। সাধারণ সময়ের তুলনায় বেশ কম দামেই কাঁচা সবজি কিনেছেন তারা।

[৩] বিবিধ সবজি বিক্রি হয়েছে সর্বোচ্চ ৩০-৪০ টাকায়। আলু ২০, লাল আলু ২৫-৩০, মুলা ৭, বেগুন ১৫, টমেটো ১৫, লাউ ২০, গাজর ২০, পটল ২০, কুমড়া ৩০, কাচা মরিচ ৩০, সিম ১৫-২০ টাকা করে প্রতি কেজি বিক্রি হয়েছে। দাম শনিবার আরো কমতে পারে বলে ধারণ দোকানিদের।

[৪] এদিকে পেঁয়াজের বাজার কিছুটা কমেছে। দেশি পেঁয়াজ পাইকারিতে ৩৭-৩৮ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে। তবে এটি খুচরা এসে ৪২-৪৩ টাকা হয়ে যাচ্ছে। চায়না পেঁয়াজ বিকি হচ্ছে ৩০-৩২ টাকা করে।

[৫] তবে সবচেয়ে বেশি প্রভাব পরেছে চালের বাজারে। কোনো ক্রেতা না থাকায় বিপাকে পরেছেন তারা। কিন্তু আগে যে পরিমান বিক্রি করেছেন তাতে পুশিয়ে যাবে বলে মন্তব্য করেন কয়েকজন। বাজার এই অবস্থায় চলতে থাকলে চালের দাম কমবে বলে জানান ব্যবসায়ীরা।

[৬] মাছ, খাশি, দেশি ও ব্রয়লার মুরগীর কাম কিছুটা উঠানামা করলেও গরুর মাংসের দাম বেড়েছে। ৬০০ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে গরুর মাংস।

[৭] বেসরকারি চাকরিজীবী জহরুল বলেন, বাজারে সব জিনিসের দাম কমেছে। এর প্রভাব অতিরিক্ত কেনা কাটা। তবে খুচরা বাজারে পন্যের দাম বেশি। এর কারণ মনিটরিং না থাকাকে দুষছেন তিনি।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত