প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] করোনাভাইরাসের টিকা আবিষ্কারে বিভিন্ন দেশের মধ্যে চলছে গোপন প্রতিযোগিতা, সবচেয়ে এগিয়ে জার্মানি

আসিফুজ্জামান পৃথিল : [২] ভ্যাকসিনের পেটেন্ট পাবে কোন দেশ, বিপুল মুনাফা লুটবে কে? এই প্রশ্নগুলো ঘুরে বেড়াচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপ, চীনে ইতোমধ্যেই ক্লিনিকাল ট্রায়াল শুরু হয়ে গিয়েছে। বিশেষজ্ঞদের একাংশ আগে থেকেই ভবিষ্যৎবাণী করছেন, প্রতিষেধক এলেও বাজারে তার জন্য হাহাকার পড়ে যাবে। কারণ যে দেশ তৈরি করবে, তারা আগে দেশের নাগরিকদেরর জন্য প্রতিষেধক নিশ্চিত করে তবে বাজারে ছাড়বে এবং মুনাফা লুটবে। ফক্স, ন্যাশনাল, সায়েন্স

[৩] ৮০ দিনের কম সময়েই চীনা বিজ্ঞানীরা উহান করোনা ভাইরাসের জীবনরহস্য বা জিনোম সিকোয়েন্স আবিস্কার করে ফেলেছিলেন। তবে তা তারা নিজেদের জন্য না রেখে ওপেন সোর্স করে দিয়েছিলেন। এ কারণে টিকা আবিষ্কার বেশ সহজ হয়ে গেছে। উন্মুক্ত জিনোম কোড হাতে পেয়ে সবচেয়ে এগিয়ে গিয়েছে জার্মানি।

[৪] ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলোর মধ্যে অন্য সময়ে তীব্র রেষারেষি লেগেই থাকে। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে তারাও পরস্পরকে সব রকম সহযোগিতায় রাজি। যদিও ক্ষমতার লড়াইয়ে রাষ্ট্রনেতারা ভুলতে পারছেন না প্রথম হওয়ার স্বাদ।

[৫] চীনে অন্তত হাজারখানেক বিজ্ঞানী ভ্যাকসিন তৈরির চেষ্টা করে যাচ্ছেন। এবং গোটা বিষয়টি চলছে সেনা নিরাপত্তায়। চাইনিজ অ্যাকাডেমি অব সায়েন্সেস-এর প্রধান ওয়াং বলেন, ‘আমরা কারও থেকে পিছিয়ে নেই।’

[৬] মার্কিন ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলোর সঙ্গে বৈঠক করছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও। তার নির্দেশ, আমেরিকার মাটিতেই ভ্যাকসিন তৈরি করতে হবে। শোনা যাচ্ছে, জার্মানির একটি সংস্থাকে ‘ঘুষ’ দেওয়ার চেষ্টাও করেছিলেন তিনি।

[৭] জার্মান সংস্থার খবর প্রকাশ্যে আসতেই ইউরোপিয়ান কমিশন আবার তাদের ৮ কোটি ৫০ লক্ষ ডলার অর্থসাহায্য দিয়েছে বলে শোনা যাচ্ছে। একটি সূত্রের খবর, চীনের এক সংস্থাও নাকি জার্মানির একটি সংস্থাকে ১৩ কোটি ৩৩ লাখ ডলারের বিনিময়ে ভ্যাকসিনের মালিকানার অংশীদারি কেনার প্রস্তাব দিয়েছে।

[৮] এই গবেষণায় পিছিয়ে নেই জাপাও। জাপানি বিজ্ঞানীরা হিউম্যান ট্রায়ালের বেশ কাছাকাছি চলে গেছেন বলেও জানা গেছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত