প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পেটের ব্যথা সহ্য করতে না পেরে হাসপাতালেই আত্মহত্যা করলেন রোগী

ইসমাঈল ইমু : [২] শাহবাগ বারডেম হাসপাতালের বাথরুমে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় হানিফ (৩৫) নামে এক রোগীর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার ভোর চারটার দিকে পুলিশ মৃতদেহটি উদ্ধার করে।

[৩] হানিফের স্ত্রী মাসুমা আক্তার জানান, হানিফ নারায়ণগঞ্জ জেলার আড়াইহাজার উপজেলার বাহেরচর গ্রামের আ. মান্নানের পুত্র। সে পেশায় কাঠমিস্ত্রী ছিল। চার বছর ধরে সে অসুস্থ্য। তার ডায়াবেটিক, পায়ের আঙ্গুলের ঘা, পেট জ্বালাপোড়াসহ বিভিন্ন সমস্যা ছিল। দুই সন্তান নিয়ে নারায়ণগঞ্জে থাকতো তারা।

[৪] গত ২০ মার্চ হানিফকে বারডেম হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। হাসপাতালের ৯ম তলার ওয়ার্ডে ভর্তি ছিল। সোমবার রাত ১২টার দিকে তারা দুজন বেডে ঘুমিয়ে পড়েন। এরপর রাত তিনটার দিকে ঘুম ভেঙে গেলে স্বামীকে বেডে দেখতে পায় না মাসুমা। পরে বাথরুমের কাছে গিয়ে দেখেন দরজা বন্ধ। এরপর স্টাফ-নার্সদের ডাকলে তারা দরজা ধাক্কা দিয়ে ভিতরে ঢোকে। এর পর তারা দেখে যে, হানিফা বাথরুমের শাওয়ারের সঙ্গে পরনের লুঙ্গি পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলছে। পরে পুলিশে এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে। অসুস্থতার কারণেই সে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে ধারণা মাসুমার।

[৫] রমনা থানার এসআই বিপ্লব সরকার সুরতহাল প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন, বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে হানিফা বারডেম হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। পেটের ব্যথা সহ্য করতে না পেরে রাত আনুমানিক তিনটা থেকে চারটার মধ্যে বাথরুমে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তবে ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হওয়া যাবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত