প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] করোনার আড়ালে ডেঙ্গু, গতবারের চেয়ে আক্রান্তের সংখ্যা ৪ গুণ বেশি

মাসুদ আলম : [২] করোনার কারণে অনেকটা আড়াল হয়ে গেছে ডেঙ্গু মোকাবেলার কার্যক্রম। বর্ষার আগেই এবার দেখা দিয়েছে ডেঙ্গুর জোর প্রার্দুভাব। গেল বছর এসময়ে ডেঙ্গু আক্রান্ত যতো রোগী ছিলো এবছর তা বেড়েছে প্রায় ৪ গুণ।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিষয়টি উদ্বেগের। এখনই যদি মশক নিধনে কঠিন পদক্ষেপ নেয়া না হয় তাহলে সামনে ডেঙ্গু ভয়ানক রূপ নেবে। করোনার প্রভাব রাজপথে, মানুষের জীবন আচারে চিরচেনা ভিড় নেই, মাস্ক পরে ছুটছেন বেশিভাগ মানুষ।

[৩] দেশ যে সময়ে ঢুকলো করোনা, ঋতু চক্রের হিসাবে ঠিক সে সময়ই শুরু এডিস মশার মৌসুম। যদিও বছরের শুরু থেকেই ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছেন অনেকে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাব বলছে, চলতি বছর পয়লা জানুয়ারি থেকে মার্চের ২১ তারিখ পর্যন্ত ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ২৬৬ জন। যে সংখ্যা গেল বছরের প্রথম তিন মাসে ছিল মাত্র ৭৩ জন।

[৪] কয়েকবছর ধরে রাজধানীর এডিস মশার ওপর গবেষণা করছেন কীটতত্ত্ববিদ অধ্যাপক কবিরুল বাশার। তার মতে মৌসুম শুরুর আগে ডেঙ্গু আক্রান্তের এ সংখ্যা উদ্বেগজনক। তিনি বলেন, বৃষ্টি হবার পরেই কিন্তু পাত্র তৈরি হয়ে গেছে ঢাকা শহরের বিভিন্ন এলাকাতে। আগামী ১০-১৫ দিনের মধ্যে এডিস মশা বাড়া শুরু করবে।বৃষ্টি বাড়বে এডিস মশার ঘনত্ব বাড়াও শুরু করবে। যদি আগাম পদক্ষেপ না নেওয়া হয় তবে এবারও পরিস্থিতি খারাপ হতে পারে।

[৫] জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগ সম্প্রতি রাজধানীর ৯৮টি ওয়ার্ডে ১০০টি পয়েন্ট থেকে সংগ্রহ করে। সেখানেও গেল বছরের চেয়ে বেশি মেলে এডিসের লার্ভা। অধ্যাপক কবিরুল বাশার বলেন, এবছর জুলাই-আগস্ট মাসে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বেশি হবার সম্ভাবনা রয়েছে। করোনার পাশাপাশি তাই ডেঙ্গু মোকাবেলা করাও প্রয়োজন, এমনটা না হলে দেখা যাবে করোনাকে প্রতিরোধ করতে যেয়ে আমরা ডেঙ্গুকে ভুলে গেলাম আর সেখানে অনেক ডেঙ্গুরোগী হয়ে গেল।

[৬] যদিও স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে, করোনার প্রভাবে ডেঙ্গু প্রতিরোধ কার্যক্রমে ব্যতয় হওয়ার সুযোগ নেই। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টারের সহকারী পরিচালম ডা. আয়শা আক্তার বলছেন, আতংকিত হবার কিছু নেই। আমরা সবাই সম্বিলিতভাবে কাজ করে যাচ্ছি, তবে এখন জনগণকেও আমাদের কাজে সাহায্য করতে হবে। বাসার বাইরে যেগুলো থাকবে সেগুলো আমরা করলেও বাসার ভিতরে যা থাকবে তা নিজেদেরকে পরিষ্কার করতে হবে। তবে ওনেকটাই মশার উপদ্রব কমে যাবে। কাগজ-কলমে বছরজুড়ে ডেঙ্গু প্রতিরোধে কার্যক্রম রয়েছে, সিটি করপোরেশনসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগের। সূত্র: চ্যানেল টোয়ান্টিফোর।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত